শুক্রবার | আগস্ট ১৪, ২০২০ | ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭

পণ্যবাজার

নতুন মৌসুমে শস্য রফতানি বাড়ানোর আশা রাশিয়ার

বণিক বার্তা ডেস্ক

আগামী জুলাই রাশিয়ায় শুরু হবে শস্যের ২০২০-২১ বিপণন মৌসুম। নতুন বিপণন মৌসুমে দেশটি থেকে শস্য রফতানিতে চাঙ্গা ভাব বজায় থাকতে পারে বলে প্রত্যাশা করছেন খাতসংশ্লিষ্টরা। মস্কোভিত্তিক কৃষিপণ্যবিষয়ক পরামর্শক প্রতিষ্ঠান সভইকনের এক নোটে সম্প্রতি আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়েছে। খবর রয়টার্স ওয়াল্ডগ্রেইনডটকম।

বিশ্বের শীর্ষ গম রফতানিকারক দেশ রাশিয়া। এর বাইরে ভুট্টা, জব, সয়াবিন, সূর্যমুখী তেলসহ আরো অরেক শস্য রফতানিতে দেশটির অবস্থান বেশ দৃঢ়। ২০২০-২১ বিপণন মৌসুমে দেশটির ইতিহাসে দ্বিতীয় বৃহত্তম শস্য রফতানি প্রত্যাশা করছে সভইকন। এর আগে ২০১৭-১৮ বিপণন মৌসুমে -যাবত্কালের সর্বোচ্চ শস্য রফতানি করেছিল দেশটি। ওই সময়ে শস্য উৎপাদনে দেশটি আগের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গিয়েছিল।

সভইকনের প্রাক্কলন অনুযায়ী, ২০২০-২১ বিপণন মৌসুমে রাশিয়া থেকে শস্যের সম্মিলিত রফতানি দাঁড়াতে পারে কোটি ৭৪ লাখ টনে, যা চলতি বিপণন মৌসুমের তুলনায় ৩৯ লাখ টন বেশি। আগামী বিপণন মৌসুমে দেশটি থেকে গম রফতানি রেকর্ড ছাড়াতে পারে। ২০২০-২১ বিপণন মৌসুমে রাশিয়া থেকে সব মিলিয়ে কোটি ৬৮ লাখ টন গম আন্তর্জাতিক বাজারে রফতানি হতে পারে, চলতি বিপণন মৌসুমের তুলনায় যা ৩০ লাখ টন বেশি।

বৈশ্বিক চাহিদা বৃদ্ধির পাশাপাশি চলতি বছর শস্যের অভ্যন্তরীণ বাম্পার ফলন আগামী বিপণন মৌসুমে রাশিয়া থেকে পণ্যটির রফতানি বৃদ্ধির পেছনে মূল প্রভাবক হিসেবে কাজ করতে পারে। এছাড়া ইউক্রেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ (ইইউ) শস্য রফতানির অন্যান্য শীর্ষ দেশে উৎপাদস হ্রাস আন্তর্জাতিক বাণিজ্যে রাশিয়ার প্রতিযোগিতা কমিয়ে আনতে সহায়ক ভূমিকা পালন করতে পারে বলে নোটে জানিয়েছে সভইকন।

প্রতিষ্ঠানটির দেয়া তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছর রাশিয়ায় সব মিলিয়ে ১২ কোটি ৬৩ লাখ টন শস্য উৎপাদন হতে পারে। এর মধ্যে গম উৎপাদনের পরিমাণ দাঁড়াতে পারে কোটি ১২ লাখ টন। ২০১৯ সালে দেশটিতে মোট ১২ কোটি ১২ লাখ টন শস্য উৎপাদন হয়েছিল, যার মধ্যে গমের হিস্যা ছিল কোটি ৪৫ লাখ টন। অর্থাৎ এক বছরের ব্যবধানে রাশিয়ায় এবার শস্যের সামগ্রিক উৎপাদন বাড়তে পারে ৫১ লাখ টন এবং গম উৎপাদন বাড়তে পারে ৬৭ লাখ টন।

এদিকে নভেল করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের শুরুর দিকে অভ্যন্তরীণ বাজার সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে শস্য রফতানিতে যে কোটা আরোপ করেছে রাশিয়ার সরকার, তা আসন্ন বিপণন মৌসুমেও অব্যাহত থাকতে পারে বলে জানিয়েছে দেশটির কৃষি মন্ত্রণালয়। রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা আরআইএ নভোস্তির সাম্প্রতিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, দেশটি সম্প্রতি শস্যের অভ্যন্তরীণ মজুদ বাড়িয়ে ৬০ লাখ টনে উন্নীত করার পরিকল্পনা নিয়েছে, যা দেশটির এক মাসের অভ্যন্তরীণ শস্য ব্যবহারের সমান।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন