বুধবার| এপ্রিল ০১, ২০২০| ১৭চৈত্র১৪২৬

প্রথম পাতা

টিউলিপসহ বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত চার নারী প্রার্থীর জয়

বণিক বার্তা ডেস্ক

যুক্তরাজ্যের এবারের সাধারণ নির্বাচনে বরিস জনসনের কনজারভেটিভ পার্টির কাছে ধরাশায়ী হয়েছেন লেবাররা। তবে নিজ দলের পরাজয়ের মধ্যেও জয় পেয়েছেন বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত চার নারী লেবার প্রার্থী। এদের মধ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি টিউলিপ রিজওয়ানা সিদ্দিকও রয়েছেন। খবর বিবিসি দ্য গার্ডিয়ান।

এবারের নির্বাচনে লন্ডনের হ্যাম্পস্টেড কিলবার্ন আসন থেকে লেবার পার্টির প্রার্থী ছিলেন টিউলিপ। তিনি পেয়েছেন ২৮ হাজার ৮০ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টির জনি লুক পেয়েছেন ১৩ হাজার ৮৯২ ভোট। আর একই আসনে লিবারেল ডেমোক্র্যাট প্রার্থী ম্যাট স্যান্ডার্স পেয়েছেন ১৩ হাজার ১২১ ভোট। এর মধ্য দিয়ে আসন থেকে টানা তৃতীয়বার জয়ী হয়েছেন শেখ রেহানার মেয়ে টিউলিপ সিদ্দিক। ২০১৫ ২০১৭ সালের নির্বাচনেও একই আসন থেকে জয় পেয়েছিলেন তিনি।

টানা তৃতীয়বার জয়ের রেকর্ড গড়েছেন লেবার পার্টির প্রার্থী আরেক বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত নারী রূপা হক। লন্ডনের ইলিং সেন্ট্রাল অ্যান্ড অ্যাকটন আসন থেকে ২৮ হাজার ১৩২ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন তিনি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ পার্টির প্রার্থী জুলিয়ান গ্যালেন্ট পেয়েছেন ১৪ হাজার ৮৩২ ভোট।

নিয়ে চতুর্থবারের মতো যুক্তরাজ্যের এমপি নির্বাচিত হয়েছেন সিলেটি কন্যা বলে পরিচিত রুশনারা আলী। পূর্ব লন্ডনের বেথনাল গ্রিন অ্যান্ড বো আসন থেকে লেবার পার্টির হয়ে ৪৪ হাজার ৫২ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন তিনি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ পার্টির নিকোলাস স্টোভাল্ট পেয়েছেন হাজার ৫২৮ ভোট। ২০১০ সালের নির্বাচনে রুশনারা প্রথমবারের মতো ব্রিটিশ এমপি নির্বাচিত হন। পদে নির্বাচিত তিনিই প্রথম বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত প্রার্থী। প্রথমবার জয়ের পর থেকে কোনো নির্বাচনে হারেননি তিনি।

এদিকে এবারই প্রথম যুক্তরাজ্যের এমপি নির্বাচিত হয়েছেন আরেক বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত নারী আফসানা বেগম। পূর্ব লন্ডনের পপলার অ্যান্ড লাইমহাউজ আসনে ৩৮ হাজার ৬৬০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন তিনি। আসনে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ পার্টির শন ওক পেয়েছেন হাজার ৭৫৬ ভোট।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন