আন্তর্জাতিক খবর

অভিনন্দনকে নিয়ে পাকিস্তানের বিশ্বকাপ বিজ্ঞাপন, ভারতে নিন্দার ঝড়

বণিক বার্তা অনলাইন | ০০:০০:০০ মিনিট, জুলাই ১২, ২০১৯

বিশ্বকাপে আগামী ১৬ জুন মুখোমুখি হতে যাচ্ছে ভারত-পাকিস্তান। এর আগেই ক্রিকেট নিয়ে দুই দেশের সমর্থকদের মধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে রীতিমতো বিবাদ শুরু হয়ে গেছে। আর এর শুরুটা হয়েছে পাকিস্তানে টিভি চ্যানেলে প্রচারিত বিজ্ঞাপনে বালাকোটে আটক ভারতীয় পাইলট অভিনন্দন বর্তমানের চরিত্রের অভিনয় দেখানোর জন্য। ভারতের অভিযোগ, ওই বিজ্ঞাপনে পাইলট কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানকে ব্যঙ্গ করা হয়েছে। ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

গত ২৭ ফেব্রুয়ারি ভারতীয় পাইলট অভিনন্দন বর্তমান মিগ-২১ সহ ধরা পড়ার পরে পাকিস্তানের মুখোমুখি হন। তখন তাকে আটক করে তার বক্তব্য ভিডিও ধারণ করা হয়। এ সময় তাকে হাতে কফির কাপসহ ক্যামেরার সামনে থাকা ব্যক্তিদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিতে দেখা যায়।

পাকিস্তান ওই মুহূর্তের যে ভিডিও শেয়ার করেছিল, তাতে অভিনন্দনকে বলতে শোনা গিয়েছিল, আমি দুঃখিত, আমি আপনাদের এ বিষয়ে কিছু বলতে পারব না।

অভিনন্দন বর্তমানের সেই সময়কার মুহূর্তই তুলে ধরা হয়েছে পাকিস্তানের একটি টেলিভিশন বিজ্ঞাপনে। আগামী ১৬ জুন ইংল্যান্ড আয়োজিত এবারের ক্রিকেট বিশ্বকাপে ভারত ও পাকিস্তানের খেলা।

বিজ্ঞাপনে অভিনন্দনের মতো একটি লোককে অভিনয় করতে দেখা যায়। এমনকি অভিনন্দনের মতোই গোঁফ রয়েছে তার এবং আটক হওয়ার সময় যে বক্তব্য দিয়েছিলেন সেই একই কথা বলতে শোনা যায় ওই ব্যক্তির। সেখানে তিনি বলেন, আমি দুঃখিত, আমি আপনাদের এ বিষয়ে কিছু বলতে পারব না।

বিজ্ঞাপনে অবশ্য ওই ব্যক্তিকে ম্যাচ সম্পর্কে প্রশ্ন করা হয়েছিল। নীল জার্সি পরিহিত ওই ব্যক্তির হাতেও অভিন্দননের মতো ধরা ছিল একটি সাদা কাপ।

আর এই বিজ্ঞাপন প্রচার হওয়ার পর ভারতীয় গণমাধ্যমসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিন্দার ঝড় বয়ে যাচ্ছে। অনেকেই এই বিজ্ঞাপনকে ‘সস্তা' ও ‘লজ্জাজনক' বলে অভিহিত করেছেন।

আরপিজি এন্টারপ্রাইজের চেয়ারম্যান হর্ষ গোয়েঙ্কা টুইট করেন, আমাদের হিরো অভিনন্দনকে ব্যঙ্গ করাটা পাকিস্তানেক এক লজ্জাজনক কাজ। আমাদের উচিত প্রতিশোধ নেওয়া।

আর একজন টুইটারে লেখেন, অন্তত কফি কাপটা বাঁচিয়ে রাখুন। আপনারা তো বিশ্বকাপ সামলাতে পারেন না।

অনেকে আবার বলছেন, অভিনন্দনকে নিয়ে ব্যঙ্গ করার কোনো অধিকার নেই পাকিস্তানের। তারা বলছে, পাকিস্তানকে বিশ্বকাপে খেলতে সংগ্রাম করতে হয়েছে। ভারতের রয়েছে অপ্রতিরোধ্য সব খেলোয়াড়।

আবার অনেকে বলেছেন, পাকিস্তান মেনে নিচ্ছে একমাত্র কাপ যেটা তারা জিততে পারে সেটা এই চায়ের কাপ।