স্বাস্থ্যযত্ন

টম ফোর্ডের নতুন চমক!

ফিচার ডেস্ক | ০০:০০:০০ মিনিট, জুলাই ১২, ২০১৯

সুগন্ধির বাজার দাপিয়ে বেড়ানো ব্র্যান্ড টম ফোর্ড। প্রতি বছরই তারা নতুন কিছু না কিছু উপস্থাপন করে আসছে তাদের গ্রাহকের জন্য। বলা যায়, ভক্তদের চমকে দিতে তাদের জুড়ি মেলা ভার। সে ধারাবাহিকতায় এবারো তার ব্যতিক্রম ঘটেনি। টম ফোর্ড ভক্তদের জন্য সুখবর হচ্ছে, সম্প্রতি এ ব্র্যান্ড উন্মুক্ত করেছে তাদের চমকের ডালি। যেখানে স্থান পেয়েছে টাসকান লেদার ইনটেন্স ও সোল ডি পোজিটানো অ্যাকোয়া নামের দুটো সুগন্ধি।

পুরুষ ও নারী গ্রহকের জন্য আলাদা দুটো সুগন্ধি বাজারে ছেড়েছে টম ফোর্ড। নারীর জন্য সোল ডি পোজিটানো অ্যাকোয়া ও পুরুষের জন্য টাসকান লেদার ইনটেন্স। গ্রীষ্মের সঙ্গে সামঞ্জস্য রাখতেই সাইট্রাস ও নানা রকম ফলের নির্যাস ব্যবহার করা হয়েছে নারীর জন্য তৈরি সোল ডি পোজিটানো অ্যাকোয়ায়। অন্যদিকে কাঠের নির্যাস ঢেলে দেয়া হয়েছে পুরুষের জন্য তৈরি টাসকান লেদার ইনটেন্স সুগন্ধিতে।

নারীর সঙ্গে ফুলেল সুবাস যেন খুব বেশি মানিয়ে যায়। তাই সুগন্ধি প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানগুলোও বেছে নেয় ফুল ও ফলের ঘ্রাণ। টম ফোর্ডের সোল ডি পোজিটানো সুগন্ধিতেও ব্যবহার করা হয়েছে অধিকাংশই ফুলের ঘ্রাণ। তবে এর বাইরেও ঝাঁঝালো একটি ঘ্রাণও মিশিয়ে দেয়া হয়েছে খানিকটা। এছাড়া যেসব নারী বনজ, কাঠের কিংবা সৌরভময় ঘ্রাণ ভালোবাসেন, তাদের জন্যও এটি বিশেষ কিছু। কেননা এতে ফুল, ফল, সাইট্রাসের ঝাঁঝালো ঘ্রাণের পাশাপাশি মেশানো হয়েছে কাঠের নির্যাসও। এ সুগন্ধি মূলত তাদের জন্যই, যারা তাজা, শিশিরসিক্ত ঘ্রাণ বেশ পছন্দ করেন। এছাড়া সারা দিন সতেজ ঘ্রাণ ধরে রাখতে চাইলেও এ সুগন্ধি ভালো সমাধান।

অন্যদিকে টম ফোর্ড টাসকান লেদার ইনটেন্সও কম যায় না। পুরুষের জন্য সুগন্ধি বলতে সেই একই রকম ঘ্রাণের কথাই মাথায় আসে সবার। কড়া, ঝাঁঝালো, তেজি কোনো ঘ্রাণ। সেদিক থেকে টাসকান লেদার ইনটেন্স খানিকটা ভিন্নভাবে উপস্থিত হয়েছে। ভারতের বিভিন্ন প্রদেশে জন্ম নেয়া ডাভানা গাছ ঘ্রাণের জন্য খ্যাত। সে ঘ্রাণই পুরে দেয়া হয়েছে পুরুষের জন্য তৈরি টম ফোর্ড টাসকান লেদার ইনটেন্সের বোতলে। এছাড়া চন্দন কাঠ, শৈবাল ও কস্তুরীর ঘ্রাণও জুড়ে দেয়া হয়েছে এতে। যারা নিজেদের সুগন্ধি নির্বাচনে খুব খুঁতখুঁতে এবং সুগন্ধির বিষয়ে নিজস্বতা পছন্দ করেন, সেসব পুরুষের জন্য এ সুগন্ধি উত্তম বটে।

উল্লেখ্য, এ বছরের প্রথম দিকে এ সুগন্ধি দুটো বাজারে ছাড়া হয়েছে।

 

সূত্র: লাক্সারি লঞ্চেস