পণ্যবাজার

ভারত সরকারের গম ক্রয় লক্ষ্য ছাড়াতে পারে

বণিক বার্তা ডেস্ক    | ২১:২২:০০ মিনিট, মে ১৬, ২০১৯

ভারতে চলতি বছর মোট ৯ কোটি ৯১ লাখ ২০ হাজার টন গম উৎপাদিত হয়েছে। শস্যটির বাম্পার ফলনের সুবাদে দেশটির সরকার প্রচুর পরিমাণে গম কিনে রাখছে। এ বছর ৩ কোটি ৫৭ লাখ টন গম কেনার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে ভারত সরকার। এর মধ্যে পাঁচ মাসেই লক্ষ্যমাত্রার ৮১ শতাংশ অর্থাৎ ২ কোটি ৯২ লাখ টন গম কেনা হয়ে গেছে। এ ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকলে চলতি বছর ভারত সরকারের গম ক্রয় লক্ষ্যমাত্রাকে ছাড়িয়ে যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। খবর ইকোনমিক টাইমস।

গত বছর ভারত সরকার ৩ কোটি ২০ লাখ টন লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে ৩ কোটি ৫৫ লাখ টন গম কিনেছিল। সেসময় গম উৎপাদন হয়েছিল ৯ কোটি ৭১ লাখ ১০ হাজার টন। ভারতে বেশির ভাগ রাজ্য থেকে এপ্রিলের প্রথম দিন থেকে গম কেনা শুরু করে সরকার, যা ১৫ জুন পর্যন্ত অব্যাহত থাকে।

এ বছর হরিয়ানা ও পাঞ্জাব থেকে সবচেয়ে বেশি গম কেনা হয়েছে। গোটা দেশ থেকে ক্রয়কৃত গমের ৭২ শতাংশ এ দুই রাজ্য থেকে কেনা হয়। এসব রাজ্য থেকে লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও বেশি গম কিনে ফেলেছে সরকার। পাঞ্জাব থেকে ১ কোটি ২৫ লাখ টন লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে কেনা হয়েছে ১ কোটি ২৯ লাখ টন। অন্যদিকে হরিয়ানা থেকে সাড়ে ৮ লাখ টন গমের বিপরীতে কেনা হয়েছে ৯০ লাখ ২০ হাজার টন।

ফুড করপোরেশন অব ইন্ডিয়ার (এফসিআই) একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেন, ‘ভারতে সাধারণ নির্বাচনের শেষ দুই ধাপের ভোট গ্রহণ কার্যক্রম হরিয়ানা ও পাঞ্জাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর সঙ্গে ক্রয় মৌসুম যুক্ত হওয়ায় এখান থেকে আগ্রাসীভাবে গম কেনা হচ্ছে। ১২ মে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হওয়ার আগেই পাঞ্জাব থেকে লক্ষ্যমাত্রার সমপরিমাণ গম কেনা হয়েছে। তবে গম কেনার সময়ের সঙ্গে ভোট গ্রহণের সময়সূচির সামঞ্জস্য না হওয়ায় উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ ও রাজস্থান থেকে তুলনামূলক কম গম কেনা হয়েছে। নির্বাচনের পর এসব রাজ্য থেকে আবার গম কেনা বাড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে।