খবর

বদলে যাচ্ছে হিরামনির জীবন

বণিক বার্তা অনলাইন | ১৬:৪৯:০০ মিনিট, মে ১৩, ২০১৯

রোববার ছিল মা দিবস। প্রতিটা মানুষের চিরন্তন এক আশ্রয়ের নাম ‘মা’। পৃথিবীতে কোন স্বার্থ ছাড়া যদি কেউ ভালোবেসে থাকেন, তিনি হলেন আমাদের মা। অন্যান্য মায়েদের চাইতে একটু আলাদা রকম জীবন হিরামনির। জীবনযুদ্ধের নানা পর্যায়ে ‘ধোঁকা’ খেয়ে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছেন কিছুটা। তবে সন্তানের জন্য ভালোবাসা কমেনি একটুও। তার বেঁচে থাকার অন্যতম অনুপ্রেরণা ফুটফুটে কন্যা জান্নাতকে বুকে আগলে রাখেন সবসময়। রাজধানী ঢাকার ফুটপাতে থাকা এই মায়ের দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে অনেকবারই তার বুকের ধনকে কেড়ে নেয়ার চেষ্টা করেছে অনেকে। সেই ভয় থেকে মেয়ের পায়ে বেঁধেছেন শেকল।

ব্যস্ত নাগরিক জীবনে হয়তো মানুষের অগোচরেই থেকে যেত এই হতভাগ্য মায়ের গল্প। তবে তার গল্পটি সবার সামনে এনেছেন ব্যাংক কর্মকতা শামীম আহমেদ। রাজধানীতে বেসরকারি একটি ব্যাংকে কর্মরত শামীমকে অনেকেই চেনেন তার স্বেচ্ছাসেবীমূলক কর্মকাণ্ডের জন্য। এর আগে অনেক মানসিক ভারসাম্যহীন মানুষকে সুস্থ করে তুলেছেন তিনি। বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় তা নিয়ে প্রতিবেদনও প্রকাশ হয়েছে। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে খোঁজ পেয়েছেন হিরামনির। মহাখালী ফ্লাইওভারের নিচে তার ছবি তুলে কেউ একজন ফেসবুকে পোস্ট করেছিলেন। নানা ঝুটঝামেলা পেরিয়ে তাকে ভর্তি করিয়েছেন হাসপাতালে। এরই মধ্যে হিরামনির ভাইয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন শামীম। 

হিরামনির ও তার ভাইয়ের সঙ্গে কথা বলে শামীম জানতে পেরেছেন হিরামনির জীবন যুদ্ধের কথা। হিরামনি বগুড়ার সারিয়াকান্দি থানার পাকুরি চর গ্রামের মৃত মাওলানা মোহাম্মদ মোজাম্মেল হকের মেয়ে। দুই ভাই ও তিন বোনের মধ্যে হিরামনি দ্বিতীয়।  মানসিকভাবে খুব বেশি শক্ত না হলেও দিনদুনিয়া নিয়ে খুব বেশি বেখেয়ালি নন হিরামনি। প্রায় সবকিছুই মনে আছে তার।

আজ থেকে ১৭-১৮ বছর আগে একই এলাকায় বিয়ে হয়েছিল হিরামনির। বিয়ের একবছরের মাথায় তাদের ঘরে আসে একটি ছেলে সন্তান। পরে স্বামীর পরকিয়ার কথা জানতে পেরে সংসারের ছেদ ঘটান। এরপর ছেলেকে তার নানীর কাছে রেখে তিনি পাড়ি জমান মধ্যপ্রাচ্যের দেশ লেবাননে। সেখানে গৃহকর্মী হিসেবে কাজ করতেন তিনি। চার বছর লেবাননে থাকার পর গিয়েছিলেন সৌদিতেও। সেখানে পাঁচ থেকে ছয় মাস থাকার পর ফিরে আসেন দেশে।

বণিক বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।

সম্পাদক ও প্রকাশক: দেওয়ান হানিফ মাহমুদ

বার্তা ও সম্পাদকীয় বিভাগ : বিডিবিএল ভবন (লেভেল ১৭), ১২ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫

পিএবিএক্স: ৮১৮৯৬২২-২৩, ই-মেইল: [email protected] | বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন বিভাগ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৬১৯