খবর

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন

কমিটিতে সব দলের লোক চান নাজমুল হুদা, দুর্নীতিবাজদের না নৌ প্রতিমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক | ১৬:৪৩:০০ মিনিট, এপ্রিল ১৫, ২০১৯

কোনো দুর্নীতিবাজ ও অপরাধীকে সঙ্গে নিয়ে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন করা হবে না বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। সোমবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে ১৪ দল আয়োজিত এক গোলটেবিল বৈঠকে তিনি একথা বলেন।

‘নিরাপদ সড়ক ও মাদকমুক্ত সমাজ গঠন’ শীর্ষক বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম। ১৪ দল আয়োজিত এ সেমিনারে আরো বক্তব্য রাখেন ওয়ার্কার্স পার্টির রাশেদ খান মেনন, বিএনপির সাবেক নেতা ব্যারিস্টার নাজমুর হুদা, সাম্যবাদী দলের দিলীপ বড়ুয়া, জাসদের হাসানুল হক ইনু, বিশিষ্ট লেখক ও গবেষক আবুল মকুসদ, শ্রমিক নেতা শাজাহান খান, মশিউর রহমান রাঙা প্রমুখ।

বৈঠকে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন কমিটিতে দলমত নির্বিশেষে সকলকে রাখার প্রস্তাব দেন। এ প্রসঙ্গ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘আমি ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলতে চাই, কোনো দুর্নীতিবাজ, কোনো অপরাধীকে নিয়ে এটা উদযাপন করা হবে না। আপরাধী যারা জেলে আছে, তারা যদি নিজেদেরকে সংশোধন করতে পারে তাহলে রাজনীতির মূলধারায় ফিরে আসতে পারে, তার আগে নয়।’

‘দেশের সবাই এখন আওয়ামী লীগ’ মোহাম্মদ নাসিমের এই বক্তব্যের প্রসঙ্গে নৌ প্রতিমন্ত্রী বলেন, পুরো বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় আওয়ামী লীগের আদর্শ ধারণ করুক এটা আমরাও চাই। কিন্তু মনে রাখতে হবে, জয় বাংলা স্লোগান দিয়ে অতীতের অপকর্ম ঢাকা যাবে না।

নিরাপদ সড়কের বিষয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশের রাজনীতিতে লেভেল প্লেইং ফিল্ড নাই, এই চাপটা পরিবহন সেক্টরেও পড়েছে। আজকে একটা সড়ক দুর্ঘটনা হলে সবাই শুধু বর্তমান নিয়েই কথা বলেন, কিন্তু কিভাবে আজকের অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে এটা কেউ বলেন না। পচাত্তরে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর দেশের সব সেক্টর ধ্বংস করে দেয়া হয়। সেই দুর্বৃত্তায়ন চলেছে বহু বছর। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর সে ক্ষত সারানোর কাজ শুরু হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনার দল রাষ্ট্রক্ষমতায় বলে এখন দেশের প্রতিটি সেক্টরে উন্নয়ন হচ্ছে।

তিনি বলেন, নিরাপদ সড়ক নিশ্চিত করতে একটি জাতীয় কমিটি করা হয়েছে। ১১১টি সুপারিশ আসছে। আশা করি সড়কমন্ত্রী দেশে ফিরলে এ বিষয়ে কাজ শুরু হবে।