খেলা

চমক নিয়ে আসছে রিয়াল-পিএসজি-বায়ার্ন

  | ২১:৪১:০০ মিনিট, মার্চ ২৩, ২০১৯

গ্রীষ্মের দলবদল ক্রমে ঘনিয়ে আসছে। শুরু হয়ে গেছে নানা ধরনের জল্পনা-কল্পনাও। কে কোথায় যাচ্ছে কিংবা কোন দল কত অর্থ নিয়ে দল গোছানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে, এসবের দিকেই এখন নজর ফুটবলবিশ্বের। শোনা যাচ্ছে, দলবদলে বড় ধরনের চমক নিয়ে হাজির হচ্ছে ইউরোপীয় তিন জায়ান্ট দল রিয়াল মাদ্রিদ, প্যারিস সেন্ট জার্মেই (পিএসজি) ও বায়ার্ন মিউনিখ। এই তিন দলের প্রত্যেকেই কোনো না কোনোভাবে এ মৌসুমে বড় ধরনের ধাক্কা খেয়েছে। এমনকি তিন দলই এরই মধ্যে বিদায় নিয়েছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের মঞ্চ থেকে। তাই এখন থেকেই আগামী মৌসুমের জন্য প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে দল তিনটি। একাধিক তারকা খেলোয়াড় দিয়ে ঘর গোছাতে চায় তারা।

রিয়াল মাদ্রিদ: টানা তিনবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগজয়ী দল তারা, কিন্তু এ মৌসুমে পার করতে পারেনি শেষ ষোলোর গণ্ডি। বিদায় নিয়েছে কোপা ডেল রে শিরোপা লড়াই থেকে, আর এক রকম শেষ হয়ে গেছে লিগ জয়ের সম্ভাবনাও। এমন বাজে পারফরম্যান্স সাম্প্রতিক অতীতে দেখা যায়নি দলটির কাছ থেকে। এমনকি দলের কোচের দায়িত্বে বদল করা হয়েছে তিনজনকে। শেষ পর্যন্ত দলকে এ বিপদ থেকে উদ্ধারে বিদায়ের নয় মাসের মাথায় ফেরানো হয়েছে হাইপ্রোফাইল কোচ ও কিংবদন্তি ফুটবলার জিনেদিন জিদানকে। কিন্তু রিয়ালের এমন ব্যর্থতায় কোচের যতটা দায়, তার চেয়ে কোনো অংশে কম নয় রোনালদোর অনুপস্থিতিও। দীর্ঘদিন ধরেই সামনে থেকে দলকে একের পর এক শিরোপা এনে দেয়ার পথে অগ্রগণ্য ভূমিকা রেখেছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। এ মৌসুম শুরুর আগেই এক রকম ক্ষোভ নিয়ে রিয়াল ছেড়ে জুভেন্টাসে পাড়ি জমান ‘সিআর সেভেন’। এরপর থেকেই দলে অনুভূত হতে থাকে তার অভাব। সে সময় থেকে অবশ্য তার বিকল্পের খোঁজে আছে ‘লস ব্লাঙ্কোস’রা। অনেকের নাম বিভিন্ন সময়ে শোনা গেলেও এখন পর্যন্ত তার কোনো যোগ্য বিকল্প হাজির করতে পারেনি দলটি। তবে আগামী দলবদলেই এ সমস্যার সমাধান করতে চান দলের প্রেসিডেন্ট ফ্লোরেন্তিনা পেরেজ। রোনালদোর বিকল্প হিসেবে এর আগে শোনা যাচ্ছিল এডেন হ্যাজার্ড, পল পগবা, নেইমার, কিলিয়ান এমবাপ্পেসহ একাধিক নাম। তবে এখন পর্যন্ত কাউকেই নিশ্চিত করতে পারেনি তারা। শুরুতে হ্যাজার্ডের রিয়ালে আসা সময়ের অপেক্ষা বলে মনে হলেও এ মুহূর্তে এমবাপ্পেকেই মনে হচ্ছে রোনালদোর সম্ভাব্য বিকল্প। পিএসজিতে দুই বছরে দুটি দীর্ঘমেয়াদি চোটে পড়েছেন নেইমার। অন্যদিকে বয়স, পারফরম্যান্স, আকাঙ্ক্ষা এবং পেশাদারিত্বে এমবাপ্পেকে এগিয়ে রাখা হচ্ছে নেইমারের চেয়ে। মাত্র ২০ বছর বয়সের মধ্যেই বিশ্বকাপ জয়ের মতো অভিজ্ঞতাও আছে এই ফরাসি তরুণের ঝুলিতে। তাই এমবাপ্পের জন্য হয়তো ২৫০ থেকে ৩০০ মিলিয়ন ইউরোর মতো বড় অংকের প্রস্তাব নিয়ে হাজির হতে পারে রিয়াল। আর সেটি হলে দলবদলের সবচেয়ে বড় চমকটি আসবে রিয়ালের কাছ থেকেই। এরই মধ্যে অবশ্য পোর্তো থেকে ৫০ মিলিয়ন ইউরোয় এডের মিলিতাওকে নিয়ে এসে দলবদলে বড় শুরুর ইঙ্গিত দিয়েছে রিয়াল। এমবাপ্পে ছাড়াও দলে আরো কয়েকজন তারকা খেলোয়াড়কে ভেড়ানোর চিন্তা করছে তারা। এখন এ যাত্রা গ্রীষ্মের দলবদল শেষে কোথায় গিয়ে থামে, সেটিই দেখার অপেক্ষা।

পিএসজি: একমাত্র চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতার জন্য দীর্ঘদিন ধরে পানির মতো টাকা ঢেলে আসছে পিএসজির মালিক নাসের আল খেলাইফি। কিন্তু এখন পর্যন্ত কাঙ্ক্ষিত সাফল্যের ধারে কাছেও যেতে পারেনি দলটি। দলে নেইমার ও এমবাপ্পের মতো দুজন তারকা খেলোয়াড় থাকার পরও গত দুই মৌসুমে পিএসজিকে বিদায় নিতে হয়েছে দ্বিতীয় রাউন্ড থেকে। এর মাঝে নেইমারের চোট দুবারই ভুগিয়েছে দলটিকে। এমনকি এবারের প্রতিযোগিতায় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের বিপক্ষে ২-০ গোলে এগিয়ে থাকার পরও শেষ পর্যন্ত প্যারিসে হেরে বিদায় নিতে হয়েছে পিএসজিকে। তাই এবার দলবদলে আরো বড় অংকের অর্থ নিয়ে হাজির হতে চায় দলটি। মূলত নতুন প্রতিভাবদেরকেই দলে আনতে চায় তারা। পাশাপাশি যদি নেইমার কিংবা এমবাপ্পে দল ছেড়ে যান, তবে সেক্ষেত্রে সেই বিকল্পও ভাবতে হচ্ছে দলটিকে। সব মিলিয়ে আগে থেকেই গ্রীষ্মের দলবদলের জন্য প্রস্তুত হতে শুরু করেছে প্যারিসের জায়ান্ট দলটি।

বায়ার্ন মিউনিখ: প্রায় এক দশক ধরে জার্মান ক্লাব বায়ার্ন মিউনিখের হয়ে দাপটের সঙ্গে খেলে আসছিলেন ফ্রাংক রিবেরি ও আরিয়েন রোবেন। কিন্তু দুজনই পেরিয়ে এসেছেন তাদের সেরা সময়। গত ডিসেম্বরেই ক্লাব কর্তৃপক্ষ এ মৌসুম শেষে দুজনকে বিদায় জানানোর কথা বলেছে। এ দুজনের বিদায় মানে একটি যুগের সমাপ্তি। তাদের প্রভাব থেকে বেরুতেও সময় লাগবে বায়ার্নের। এখন তাই দল নিয়ে নতুনভাবেই ভাবতে হচ্ছে দলটিকে। এরই মধ্যে সেই প্রক্রিয়ায় তারা দলে নিয়ে এসেছে ফ্রান্সের বিশ্বকাপজয়ী তারকা বেঞ্জামিন পাভার্ডকে। এছাড়া তাদের আগ্রহ আছে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদের আরেক তারকা লুকাস হার্নান্দেজের ওপরও। ধারণা করা হচ্ছে, এ মৌসুমে দলের শক্তি বৃদ্ধির জন্য ২০০ মিলিয়ন ইউরো হাতে রেখে মাস্টারপ্ল্যান সাজাবে বাভারিয়ান জায়ান্টরা, যা আগামী দলবদলে বড় ধরনের পরিবর্তন আসবে দলটিতে।

এ তিনটি দল ছাড়াও দলবদলে বড় ঝড় তোলার সম্ভাবনা আছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও জুভেন্টাসের। এ দুই দল আবার নিজেদের মাঝে খেলোয়াড় বদলও করে নিতে পারে। যেখানে ম্যানইউর কাছে পাওলো দিবালাকে ছেড়ে দিতে পারে জুভেন্টাস। আর বদলি হিসেবে জুভেন্টাস নিয়ে নিতে পারে রোমেলু লুকাকুকে। এছাড়া ম্যানইউ দলে আনার কথা ভাবছে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদের ফরাসি তারকা আতোয়াঁন গ্রিজম্যানকেও। অন্যদিকে ম্যানইউর আরেক তারকা মিডফিল্ডার পল পগবাও এখন রিয়ালের প্রতি নিজের মুগ্ধতা প্রকাশ করে লড়াই জমিয়ে তুলেছেন। তবে সব হিসাব খোলাসা হতে আরো কিছু সময় অপেক্ষা করতে হবে সবাইকে। মার্কা