খবর

রঙিন ভুট্টার ক্লোন উদ্ভাবন ড. আবেদ চৌধুরীর

বণিক বার্তা প্রতিনিধি মৌলভীবাজার | ০১:৫৭:০০ মিনিট, জানুয়ারি ২২, ২০১৯

বিশ্বের সফল জিন বিজ্ঞানী ও মৌলভীবাজারের কুলাউড়ার কৃতী সন্তান ড. আবেদ চৌধুরী রঙিন ভুট্টার ক্লোন উদ্ভাবন করেছেন। গত রোববার বিকালে কুলাউড়া উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে উপজেলার সফল কৃষক, সাংবাদিক ও প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে ‘রঙিন ভুট্টা’ নিয়ে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় কথা বলেন তিনি। অনুষ্ঠানের আয়োজন করে কুলাউড়া উপজেলা পরিষদ।

ড. আবেদ চৌধুরী বলেন, ধান ও গমের তুলনায় ভুট্টার পুষ্টিগুণ বেশি। আর নতুন উদ্ভাবিত এ ভুট্টার পুষ্টিগুণ সাধারণ ভুট্টার চেয়ে বেশি হবে। এটিকে নিউ নিউট্রিশন বলা যেতে পারে। ভুট্টায় কেরোটিন থাকার কারণে মূলত এর রঙ হলুদ হয়। তাই তিনি রঙিন ভুট্টার ক্লোন উদ্ভাবন করেন। রঙিন ভুট্টা ক্যান্সার প্রতিরোধক বলে জানান আবেদ চৌধুরী। বিশেষ করে শিশুদের কাছে এ ভুট্টা ব্যাপক জনপ্রিয় হবে।

আবেদ চৌধুরী বলেন, নতুন উদ্ভাবিত রঙিন ভুট্টা বছরে চারবার চাষ করা যাবে। আবার খারিফ-১ ও ২ মৌসুমেও চাষ করা যাবে। এ ভুট্টার ফলন হবে উচ্চফলনশীল (হাইব্রিডের সমান)। ফলে ভুট্টা চাষে কৃষকরা আরো উৎসাহিত হবেন। ভুট্টাচাষীসহ সফল কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করতে তিনি রঙিন ভুট্টার বীজ বিতরণ করেন এবং প্রতি বাড়ির আশপাশে এবং পতিত জায়গায় ভুট্টা চাষের আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, আমি দীর্ঘদিন বিদেশে ছিলাম। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে সেবা দিয়েছি। এবার সেই সেবা নিজের দেশকে দিতে চাই। বিশেষ করে কুলাউড়ার কৃষি বিভাগকে এগিয়ে নিতে আলাদা সময় দেবেন বলে জানান এ জিন বিজ্ঞানী।

কৃষি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে আবেদ চৌধুরী বলেন, আমাদের দেশে বিজ্ঞানের কারণে কৃষির উৎপাদন বেড়েছে। কিন্তু উদ্বেগের বিষয় হলো, যেভাবে জমির উর্বর অংশ ইটভাটায় নেয়া হচ্ছে, মিল ফ্যাক্টরি করে ধানি জমিকে ধ্বংস এবং নগরায়ণ করা হচ্ছে, তাতে কৃষি বিভাগ আগামীতে হুমকির মুখে পড়বে। তাই কৃষি নিয়ে নতুন করে ভাবতে হবে এবং নতুন জাতের উদ্ভাবন করতে হবে।

কুলাউড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আ স ম কামরুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জগলুল হায়দারের সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগোর অনারারি কনসাল জেনারেল মুনির চৌধুরী, সাংবাদিক সুশীল সেনগুপ্ত, ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক মইনুল ইসলাম শামীম, প্রেস ক্লাব কুলাউড়ার সভাপতি আজিজুল ইসলাম, শ্রেষ্ঠ চাষী আব্দুল জব্বার প্রমুখ।