পণ্যবাজার

বাণিজ্যযুদ্ধের কারণে আমদানি কমাচ্ছে চীন

বণিক বার্তা ডেস্ক | ২০:৩৫:০০ মিনিট, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৮

চীন-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে বাণিজ্যযুদ্ধ চলছে। এর জের ধরে যুক্তরাষ্ট্র থেকে সয়াবিন আমদানি কমিয়ে দিয়েছে চীন। ২০১৮-১৯ মৌসুমে দেশটিতে কৃষিপণ্যটির আমদানি আগের প্রাক্কলনের তুলনায় এক কোটি টনের বেশি কমে আসতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে চীনের মিনিস্ট্রি অব এগ্রিকালচার অ্যান্ড রুরাল অ্যাফেয়ার্স। ক্রমবর্ধমান অভ্যন্তরীণ চাহিদার বিপরীতে দেশটি আমদানি কমিয়ে বাড়তি সয়াবিন উৎপাদনে ঝুঁকেছে বলে জানান খাতসংশ্লিষ্টরা। খবর সিনহুয়া ও রয়টার্স।

চীনের সাম্প্রতিক সরকারি পূর্বাভাস অনুযায়ী, ২০১৮-১৯ মৌসুমে দেশটিতে সব মিলিয়ে ৮ কোটি ৩৬ লাখ ৫০ হাজার টন সয়াবিন আমদানি হতে পারে, যা প্রতিষ্ঠানটির আগের প্রাক্কলনের তুলনায় ১ কোটি ২ লাখ টন কম। আগের পূর্বাভাসে ২০১৮-১৯ মৌসুমে চীনে মোট ৯ কোটি ৩৮ লাখ ৫০ হাজার টন সয়াবিন আমদানির প্রাক্কলন করা হয়েছিল। ২০১৭-১৮ মৌসুমে আন্তর্জাতিক বাজার থেকে সব মিলিয়ে ৯ কোটি ৩৯ লাখ টন সয়াবিন আমদানি করেছিলেন চীনা আমদানিকারকরা। সেই হিসাবে এক বছরের ব্যবধানে দেশটিতে কৃষিপণ্যটির আমদানি কমতে পারে ১ কোটি ২ লাখ ৫০ হাজার টন।

এদিকে মার্কিন কৃষি বিভাগের (ইউএসডিএ) ফরেন এগ্রিকালচারাল সার্ভিসের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৭ সালে আন্তর্জাতিক বাজার থেকে চীনা আমদানিকারকরা মোট ৯ কোটি ৬০ লাখ টন সয়াবিন আমদানি করেছিলেন, যা আগের বছরের তুলনায় ১২ দশমিক ৩৩ শতাংশ বেশি। এটাই চীনের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি সয়াবিন আমদানির পরিমাণ। চলতি বছর শেষে দেশটিতে কৃষিপণ্যটির আমদানি ১ দশমিক শূন্য ৪ শতাংশ কমে ৯ কোটি ৫০ হাজার টনে দাঁড়াতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

অন্যদিকে ২০১৮ সাল শেষে চীনে মোট ১ কোটি ৪৫ লাখ টন সয়াবিন আমদানি হতে পারে বলে পূর্বাভাসে জানিয়েছে ইউএসডিএ, যা আগের বছরের তুলনায় ২ দশমিক ১১ শতাংশ বেশি।