সংগীত ও স্বীকৃতি নিয়ে যা ভাবেন কিরাবানী

ফিচার ডেস্ক

ছবি: ইন্ডিয়া টুডে

ভারতের জনপ্রিয় সংগীত পরিচালক এমএম কিরাবানী। বহু আগে থেকেই তিনি সংগীত পরিচালনার জন্য বিখ্যাত। তবে ‘আরআরআর’ সিনেমার নাটু নাটু গানের পর তিনি পরিণত হয়েছেন কিংবদন্তিতে। কেননা এ গানের জন্য তিনি জিতেছেন অস্কার। এমন অর্জন ভারতে দুর্লভ। এ গানের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক সম্মান লাভ করেছেন তিনি। কিন্তু কিরাবানী নিজে মনে করেন এটি তার সেরা কাজ নয়। প্রায় তিন দশকের বেশি সময় তিনি কাজ করছেন সিনেমার সঙ্গে। এর মধ্যে রাজামৌলির সঙ্গে আরআরআরের আগে তার সাম্প্রতিকতম কাজ ছিল ‘বাহুবলী’তে। সেখানেও দারুণ সংগীত করেছেন। কিন্তু স্বীকৃতি পেলেন নাটু নাটুর জন্য।

এসব কিছু নিয়ে কিরাবানী বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি আজ হোক বা কাল, আন্তর্জাতিক বা বড় পরিসরের স্বীকৃতি আসবেই। আমি যত কাজ করি, সেটার স্বীকৃতি বা পরিচিতি আসেই। আর দেরির বিষয়টা হলো আমাদের জীবন ছকে বাঁধা। জীবনকালও তাই। সে সময় অনুসারে আমরা আগে বা পরের হিসাব করি।’

দীর্ঘদিন ধরে অনেক সিনেমায়ই তিনি সংগীত পরিচালনা করে আসছেন। এমএম ক্রিম নামেও তার পরিচিতি আছে। কেবল দক্ষিণ ভারতেই নয়, তিনি গান কম্পোজ করেছেন বলিউডের জন্যও। এসবের মধ্যে তার ধারণা, স্বীকৃতি মানে সে কাজই সেরা নয়। যেমন তিনি নাটু নাটু নিয়ে বলেন, ‘আমার পুরো কাজের স্বীকৃতি হিসেবেই হয়তো এ পুরস্কার এসেছে। কিন্তু স্বীকৃতি পাওয়া গানটিই আমার সেরা এমন নয়। যে গানের জন্য বৈশ্বিক পরিচিতি পেলাম, সেটা আমার সেরা কাজ নয়।’

কিন্তু এই পুরো বিষয়কে সুর ও সংগীতের স্বীকৃতি হিসেবে দেখেন কিরাবানী। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয়, এটা সুরকে সম্মান দিচ্ছে। সুর যেকোনো জায়গায় থাকতে পারে। আবার যেকোনো জায়গা থেকেই আমরা নিতে পারি।’

এমএম কিরাবানী সম্প্রতি কাজ করেছেন নিরাজ পাণ্ডের সিনেমায়। অজয় দেবগন অভিনীত ‘অউরো মে কাহা দম থা’ সিনেমায় সংগীত পরিচালনা করেন। এর আগে নিজেরাই ‘বেবি’তে সংগীত পরিচালনা করেছিলেন। এ সময়ের মধ্যে তার পরিচিতি বেড়েছে, কিন্তু নিরাজ বা সংগীতের সঙ্গে তার সম্পর্ক বদলায়নি। তিনি বলেন, ‘সবকিছু আগের মতোই আছে। সেই প্রথম দিন যেভাবে কাজ করেছিলাম যেমন কথা বলেছিলাম, এখনো সেভাবেই কাজ করি, সেভাবেই গল্প করি।’

সূত্র: দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন