চীনে সৌদি আরবের জ্বালানি তেল রফতানি বাড়বে

বণিক বার্তা ডেস্ক

ছবি : বণিক বার্তা

সৌদি আরবের রাষ্ট্রয়াত্ত্ব জ্বালানি প্রতিষ্ঠান আরামকো অপরিশোধিত জ্বালানি তেলে মূল্যছাড় দিয়েছে। এ কারণে আগামী মাসে দেশটি থেকে চীনে জ্বালানি তেলের রফতানি বাড়বে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যসংশ্লিষ্ট কয়েকটি সূত্র। এছাড়া আরামকোর মূল্যছাড়ের কারণে এশিয়ার অন্য দেশগুলোয়ও সৌদি আরবের অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের চাহিদা বেড়েছে। খবর রয়টার্স। 

সংশ্লিষ্ট সূত্রের দেয়া তথ্যানুযায়ী, চীনে আগস্টে সৌদি আরবের অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রফতানির পরিমাণ ৪ কোটি ৪০ লাখ ব্যারেলে পৌঁছবে, যা গত চার মাসে সর্বোচ্চ। চলতি মাসে দেশটিতে সৌদি আরবের মোট ৩ কোটি ৬০ লাখ ব্যারেল জ্বালানি তেল রফতানির কথা রয়েছে।

বাজার বিশ্লেষক প্রতিষ্ঠান কেপলারের দেয়া তথ্যানুযায়ী, গত জুনে চীনে সৌদি আরব দৈনিক ১১ লাখ ২০ কোটি ব্যারেল অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রফতানি করেছে, যা ২০২০ সালের মার্চের পর থেকে সর্বনিম্ন।

অপরিশোধিত জ্বালানি তেল আমদানিতে বিশ্বে শীর্ষ অবস্থান চীনের। আগস্টে রফতানি বাড়লে বৃহত্তম এ আমদানি বাজারে সৌদি আরবের হিস্যা বাড়বে। সৌদি আরব থেকে চীনের ঝেজিয়াং পেট্রোকেমিক্যাল, সিনোপেক সিনোকেম ও পেট্রোচায়না কোম্পানিগুলো সাধারণত অপরিশোধিত জ্বালানি তেল আমদানি করে। এছাড়া সূত্র আরো জানায়, সৌদি আরবের আরামকো চীন ছাড়াও আগস্টে কমপক্ষে তিনটি উত্তর এশীয় শোধনাগারে অপরিশোধিত জ্বালানি তেল সরবরাহ করবে।

গত মাসে বাণিজ্যসংশ্লিষ্ট অন্য এক সূত্র জানিয়েছিল, সৌদি আরব এশিয়ার ক্রেতাদের জন্য অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের স্থানীয় গ্রেড আরব লাইট ক্রুডের দাম কমাতে পারে। মধ্যপ্রাচ্যের বেঞ্চমার্ক হিসেবে পরিচিত দুবাই ক্রুডের দাম কমানোর ফলে এমন সিদ্ধান্ত নেয় দেশটি।

এশিয়ার জ্বালানি তেলের পরিশোধনাগারসংশ্লিষ্ট চার সূত্র জানায়, আগস্টে এশিয়া অভিমুখী আরব লাইট ক্রুডের আনুষ্ঠানিক বিক্রয়মূল্য জুলাই থেকে ব্যারেলপ্রতি ৬০-৮০ সেন্ট কমে যেতে পারে।

অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রফতানিতে শীর্ষ দেশ সৌদি আরব। দেশটি জ্বালানি তেল রফতানির ৮০ শতাংশ এশিয়ার দেশগুলোয় রফতানি করে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন