শনিবার | আগস্ট ১৩, ২০২২ | ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯  

পণ্যবাজার

আমদানি অনুমতির খবরে হিলিতে কমেছে পেঁয়াজের দাম

বণিক বার্তা প্রতিনিধি, হিলি

আসন্ন ঈদুল আজহায় পেঁয়াজের বাজার স্থিতিশীল রাখতে পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি দেয়ার অনুরোধ জানিয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়কে পত্র দিয়েছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। ফলে হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারকরা পেঁয়াজ আমদানি করতে আইপির জন্য আবেদন করতে শুরু করেছেন। খবরের পর হিলিতে কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম। একদিন আগেও প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৪০ টাকা দরে বিক্রি হলেও বর্তমানে তা কমে ৩২-৩৪ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। তবে ভালো মানের পেঁয়াজ এখনো ৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

হিলি বাজারের পেঁয়াজ বিক্রেতা শাহাবুল ইসলাম বলেন, গত সপ্তাহে হঠাৎ দেশের বিভিন্ন মোকামে পেঁয়াজের সরবরাহ কমায় দাম বাড়তে শুরু করে। পেঁয়াজের দাম মণপ্রতি হাজার ২০০ টাকা থেকে হাজার ৮০০ টাকায় উঠে আসে। তবে সরকার ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি দিচ্ছে, এমন খবরে মোকামে পেঁয়াজের দাম মণপ্রতি ২০০-৩০০ টাকা করে কমেছে। আমদানি শুরু হলে ঈদের আগে পেঁয়াজের দাম আরো কমে আসবে।

হিলি স্থলবন্দরের পেঁয়াজ আমদানিকারক মোবারক হোসেন বলেন, সরকার নতুন করে পেঁয়াজ আমদানির অনুমতিপত্র (আইপি) বন্ধ রেখেছে। ফলে প্রায় দুই মাসের মতো আমদানি বন্ধ রয়েছে। তবে দেশীয় পেঁয়াজের সরবরাহ ভালো থাকায় বেশ কিছুদিন ধরে দাম কম থাকলেও সম্প্রতি দাম ঊর্ধ্বমুখী হতে শুরু করেছে। এর ওপর ঈদুল আজহার কারণে বাড়তি চাহিদা থাকায় দাম আরো বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে। এমন অবস্থায় পেঁয়াজ আমদানির অনুমতির অনুরোধ জানিয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়েছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

তিনি বলেন, রোববার (আগামীকাল) বিষয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে সিদ্ধান্ত আসতে পারে। যদি আইপি দেয়, তাহলে এলসি খুলে সোম বা মঙ্গলবার বন্দর দিয়ে আবারো পেঁয়াজ আমদানি শুরু হতে পারে। অনেক আমদানিকারক এরই মধ্যে আইপির জন্য আবেদন করেছেন। আমদানির অনুমতি পাওয়ার পর আমরা এলসি খুলব। এতে পেঁয়াজের বাজার স্থিতিশীল অবস্থায় আসবে।

হিলি স্থলবন্দর উদ্ভিদ সংগনিরোধ কেন্দ্রের উপসহকারী সংগনিরোধ কর্মকর্তা ইউসুফ আলী বলেন, দেশীয় কৃষকের স্বার্থ বিবেচনায় গত মে এরপর থেকে কোনো পেঁয়াজের আইপি ইস্যু করেনি মন্ত্রণালয়। তবে সম্প্রতি ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর বাণিজ্য মন্ত্রণালয়কে একটি চিঠি দিয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত কৃষি মন্ত্রণালয় থেকে পেঁয়াজের আইপি দেয়ার বিষয়ে কেনো সিদ্ধান্তের কথা আমাদের জানানো হয়নি।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন