শনিবার | আগস্ট ১৩, ২০২২ | ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯  

দেশের খবর

লালমনিরহাটে চাঁদাবাজি মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে

বণিক বার্তা প্রতিনিধি, লালমনিরহাট

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার ভোটমারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেনকে চাঁদাবাজি মামলায় গ্রেফতারের পর আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গতকাল ভোরে ওই ইউনিয়নের শ্রুতিধর এলাকার নিজ বাড়ি থেকে চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেনকে গ্রেফতার করে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ। স্থানীয় এলাহী বকস নামে একজন ঠিকাদারের চাঁদাবাজি মামলায় তাকে গ্রেফতার করে থানা পুলিশ।

স্থানীয় লোকজনের অভিযোগ, সড়ক নির্মাণে অনিয়মের প্রতিবাদ করায় স্থানীয় ঠিকাদার এলাহী বকস ওই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে কালীগঞ্জ থানায় চাঁদাবাজির মামলা করেন। কালীগঞ্জ থানা পুলিশ জানা যায়, কালীগঞ্জ উপজেলার ভোটমারী ইউনিয়নের বড়দীঘিরপাড় এলাকায় একটি সড়ক নির্মাণের ঠিকাদারি কাজ করছেন এলাহী বকস। ওই সড়ক নির্মাণে অনিয়ম হচ্ছে মর্মে স্থানীয় লোকজন ইউপি চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেনকে অভিযোগ করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে চেয়ারম্যান তিনি ঠিকাদার এলাহী বকসকে ডাকেন এবং সরেজমিন পরিদর্শন করে সড়ক নির্মাণে অনিয়মের প্রতিবাদ করেন। ঘটনায় গত ২৬ জুন ভোটমারী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেনের বিরুদ্ধে - লাখ টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগ এনে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন ওই ঠিকাদার। গতকাল ভোরে ওই ইউনিয়নের শ্রুতিধর এলাকার নিজ বাড়ি থেকে চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার করে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ।

ঠিকাদার এলাহী বকস বলেন, চাঁদা চাওয়াটা বড় কথা নয়। চেয়ারম্যান সাহেব আমাকে আমার ছেলেকে চৌকিদার দিয়ে ইউনিয়ন পরিষদে ধরে নিয়ে যায়। এতে আমার মন খারাপ হয়েছে। তাই আমি মামলা করেছি।  

কালীগঞ্জ থানার ওসি বলেন, চাঁদাবাজির অভিযোগের প্রাথমিক তদন্তে সত্যতা পাওয়ায় ভোটমারী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। ওই মামলায় গতকাল সকালে তাকে গ্রেফতার করে লালমনিরহাট আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। 

লালমনিরহাট কোর্ট পুলিশের এসআই মুসা আলম বলেন, লালমনিরহাট সিনিয়র জুডিশিয়াল আদালতে চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেনকে সোপর্দ করলে বিজ্ঞ আদালত জামিন না-মঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠান।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন