শনিবার | আগস্ট ১৩, ২০২২ | ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯  

খবর

কভিড-১৯

শিশুদের টিকার জন্য নিবন্ধনের আহ্বান স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

বণিক বার্তা অনলাইন

নভেল করোনাভাইরাস প্রতিরোধে দেশে ৫ থেকে ১২ বছর বয়সী শিশুদের টিকা দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। তাই শিশুদের টিকা পেতে জন্মসনদ ব্যবহার করে অভিভাবকদের সুরক্ষা অ্যাপের মাধ্যমে নিবন্ধনের আহ্বান জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। আজ মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) এক অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এ কথা জানান।

ইনস্টিটিউট অব পেডিয়াট্রিক নিউরো ডিজঅর্ডার অ্যান্ড অটিজমের (ইপনা) পরিচালিত সার্টিফিকেট কোর্স অন নিউরো ডেপেলভমেন্ট ডিসঅর্ডারস শীর্ষক কোর্সের উদ্বোধনী ও সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ নেন জাহিদ মালেক।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, দেশে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ৫ থেকে ১২ বছরের বয়সী শিশুদের টিকা আওতায় আনা হবে। এরই মধ্যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এর অনুমোদন দিয়েছে। সরকারি পরিসংখ্যান বলছে, দেশে ৫-১২ বছর বয়সী শিশুর সংখ্যা দুই কোটি ২০ লাখ। তাদেরকে জন্মসনদ দিয়ে সুরক্ষা অ্যাপে টিকার নিবন্ধন করতে হবে। যারা এখনো নিবন্ধন করেনি, তাদের অভিভাবকদের অনুরোধ করবো-দ্রুত নিবন্ধন করুন।

সবাইকে মাস্ক পরার অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, সংক্রমণ বাড়ছে এবং নিয়মিত প্রাণহানি ঘটছে। তাই অফিস-আদালতে মাস্ক পরতে এবং স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে।

মন্ত্রী বলেন, দেশে চিকিৎসা এগিয়ে থাকলেও আমরা গবেষণায় পিছিয়ে আছি। চিকিৎসকদের সেবার পাশাপাশি এতেও গুরুত্ব দিতে হবে। আগের মতো এ বছরও ১০০ কোটি টাকা রাখা হয়েছে এ খাতে। দেশেই বাইপাস, ট্রান্সপ্লান্ট সব হচ্ছে। পাশাপাশি ভ্যাকসিন তৈরির পরিকল্পনাও নিয়েছে সরকার। গবেষণা আরো এগিয়ে যাক, সরকার সেটাই চায়। ভালো মানের গবেষণা বিএসএমএমইউতে হোক এটাই সরকারের চাওয়া। উদ্বোধনী ও সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ। অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য দেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিশু অনুষদের ডিন ও ইপনার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক অধ্যাপক ডা. শাহীন আখতার। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. জাহিদ হোসেন, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. এ কে এম মোশাররফ হোসেন প্রমুখ।


এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন