শুক্রবার | আগস্ট ১২, ২০২২ | ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯  

পণ্যবাজার

দুর্বল চাহিদার প্রভাবে চীনে কয়লা আমদানি কমেছে

বণিক বার্তা ডেস্ক

এপ্রিলে শক্তিশালী পুনরুদ্ধার ঘটলে গত মাসে চীনের কয়লা আমদানি কমেছে। জিরো কভিড নীতির কারণে ওই মাসজুড়ে কঠোর লকডাউন ছিল। এতে বিভিন্ন দেশ থেকে জ্বালানিটি আমদানি ব্যাহত হয়। এছাড়া চাহিদাও ছিল নিম্নমুখী। অন্যদিকে স্থানীয় বাজারে উত্তোলন বৃদ্ধি দাম কম থাকায় আমদানির দিকে ঝুঁকতে হয়নি সংশ্লিষ্ট কোম্পানিগুলোকে। চীনের শুল্ক বিভাগ সম্প্রতি এক প্রতিবেদনে তথ্য জানিয়েছে।

জেনারেল অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অব কাস্টমস জানায়, মে মাসে চীন সব মিলিয়ে কোটি লাখ ৫০ হাজার টন কয়লা আমদানি করে। গত বছরের একই সময়ের তুলনায় আমদানি দশমিক ৩০ শতাংশ কমেছে। চলতি বছরের এপ্রিলের তুলনায়ও আমদানি কমেছে। ওই মাসে দেশটি কোটি ৩৫ লাখ ৫০ হাজার টন কয়লা আমদানি করেছিল।

চীন বিশ্বের শীর্ষ কয়লা ব্যবহারকারী দেশ। শুল্ক বিভাগের তথ্যমতে, চলতি বছরের প্রথম পাঁচ মাসে দেশটি সব মিলিয়ে কোটি ৫৯ লাখ ৬০ হাজার টন কয়লা আমদানি করে। গত বছরের একই সময়ের তুলনায় আমদানি ১৩ দশমিক শতাংশ কমেছে।

গত বছরের দ্বিতীয়ার্ধে ভয়াবহ কয়লা সংকটে পড়ে চীন। এতে বিদ্যুৎ ঘাটতি চরম আকার ধারণ করে। পরিস্থিতির যাতে পুনরাবৃত্তি না হয়, সেজন্য চীন সরকার দেশটির খনিগুলোকে উত্তোলন বাড়ানোর নির্দেশনা দিয়েছে। পাশাপাশি স্থানীয় বাজারে কয়লা মূল্যও নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে। কৃত্রিম মজুদ মূল্যবৃদ্ধি ঠেকাতে নিয়মিত বাজার মনিটরিং করা হচ্ছে।

গত মাসে চীনে দৈনিক কয়লা উত্তোলন গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ১৩ শতাংশ বেড়েছে। সময় দেশটি সব মিলিয়ে ৩৬ কোটি ৭৮ লাখ ৩০ হাজার টন কয়লা উত্তোলন করে। সে হিসাবে দৈনিক উত্তোলনের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে কোটি ১৮ লাখ ৭০ হাজার টনে। গত বছরের একই সময় দৈনিক উত্তোলনের পরিমাণ ছিল কোটি লাখ ৩০ হাজার টন। যদিও চলতি বছরের এপ্রিলের তুলনায় দৈনিক উত্তোলন কমেছে। ওই সময় দৈনিক কোটি ২০ লাখ ৯০ হাজার টন কয়লা উত্তোলন করা হয়েছিল। মার্চে দৈনিক উত্তোলনের পরিমাণ ছিল কোটি ২৭ লাখ ৭০ হাজার টন।

এদিকে বছরের প্রথম পাঁচ মাসে দেশটি ১৮১ কোটি টন কয়লা উত্তোলন করেছে। গত বছরের একই সময়ের তুলনায় উত্তোলন ১০ দশমিক ৪০ শতাংশ বেড়েছে। দিনে কোটি ২৬ লাখ টন করে কয়লা উত্তোলনের লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে দেশটির সরকারের। উদ্দেশ্য ৬২ কোটি টনের জাতীয় মজুদ তৈরি এবং পর্যাপ্ত সরবরাহ নিশ্চিত।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন