বুধবার | জুন ২৯, ২০২২ | ১৫ আষাঢ় ১৪২৯  

শেষ পাতা

দোকানপাট বন্ধের সময়সীমা ২ ঘণ্টা বাড়ানো হলো

নিজস্ব প্রতিবেদক

দোকানপাট-বিপণিবিতান খোলা রাখার সময়সীমায় আবারো পরিবর্তন এনেছে সরকার। নতুন সিদ্ধান্তে দোকানপাট, বাজার, বিপণিবিতান বন্ধের সময় ঘণ্টা বাড়িয়ে রাত ১০টা করা হয়েছে। আগামী থেকে ১০ জুলাই পর্যন্ত সিদ্ধান্ত কার্যকর থাকবে। পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে সরকার। 

নিয়ে গতকালই শ্রম কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় থেকে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, আগামী থেকে ১০ জুলাই পর্যন্ত দোকানপাট, মার্কেট, বিপণিবিতান বন্ধের সময় সাময়িক পরিবর্তন করে রাত ৮টার পরিবর্তে রাত ১০টা করা হয়েছে। তবে ১০ জুলাইয়ের পর এসব মার্কেট, বিপণিবিতান রাত ৮টার মধ্যে বন্ধ করার সিদ্ধান্ত পুনরায় বহাল হবে।

প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়, বাংলাদেশ শ্রম আইন-২০০৬-এর ১১৪-এর উপধারার ক্ষমতাবলে একই আইনের উপধারার পরিবর্তে সাময়িক পরিবর্তন আনা হয়েছে। তবে ১০ জুলাইয়ের পর থেকে রাত ৮টায় দোকানপাট, বিপণিবিতান বন্ধের বিষয়ে বাংলাদেশ শ্রম আইনের ১১৪-এর উপধারা কঠোরভাবে প্রতিপালন করা হবে।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে ১৯ জুন শ্রম প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ানের সভাপতিত্বে শ্রম মন্ত্রণালয়ে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন, এফবিসিসিআই, বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতিসহ বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে সবার সম্মতির ভিত্তিতে দোকানপাট, মার্কেট, বিপণিবিতান রাত ৮টার মধ্যে বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এরপর ২০ জুন থেকে সারা দেশে সিদ্ধান্ত কার্যকর হয়।

এর আগে গত ১৬ জুন পর সারা দেশে দোকান, শপিংমল, মার্কেট, বিপণি বিতান, কাঁচা বাজার খোলা না রাখার নির্দেশ বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়, দপ্তরসহ মাঠ প্রশাসনের কর্মকর্তাদের চিঠি দেয়া হয়। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক (প্রশাসনমো. আহসান কিবরিয়া সিদ্দিকের সই করা চিঠিতে বলা হয়, বিশ্বব্যাপী জ্বালানির অব্যাহত মূল্যবৃদ্ধিজনিত বিদ্যমান পরিস্থিতিতে বিদ্যুৎ জ্বালানি সাশ্রযয়ের নিমিত্ত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সানুগ্রহ নির্দেশনা দিয়েছেন। লক্ষ্যে বাংলাদেশ শ্রম আইন, ২০০৬ এর ১১৪ ধারার বিধান কঠোরভাবে প্রতিপালনপূর্বক সারাদেশে রাত আটটার পর দোকান, শপিংমল, মার্কেট, বিপণি বিতান, কাঁচা বাজার ইত্যাদি খোলা না রাখার বিষয়টি যথাযথভাবে নিশ্চিত করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন


×