শনিবার | জুলাই ০২, ২০২২ | ১৮ আষাঢ় ১৪২৯  

খেলা

পুরুষদের বিশ্বকাপে ইতিহাস গড়বেন নারী রেফারিরা

ফুটবলে বিংশ শতাব্দীতে নারী রেফারির আবির্ভাব ঘটেছে বলে জানা যায়। অস্ট্রিয়ার এডিথ ক্লিঙ্গারকে বলা হয় বিশ্বের প্রথম নারী রেফারি। ১৯৩৫ থেকে ১৯৩৮ পর্যন্ত যিনি নারী পুরুষ উভয় ম্যাচেই দায়িত্ব পালন করেন। তিনি কোনো ফেডারেশনের স্বীকৃত ম্যাচের দায়িত্ব পালন করেছেন কিনা, এমন জোরালো তথ্য মেলেনি। তবে আধুনিক ফুটবলে পুরুষদের স্বীকৃত ম্যাচের প্রথম নারী অফিশিয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি ইংল্যান্ডের ওয়েন্ডি টমস। ১৯৯৭ সালে উয়েফার প্রথম শ্রেণীর লিগ পুরুষদের ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ম্যাচ পরিচালনা করেন তিনি।

১৯৯৮ সালে মেজর লিগ সকারে সান্দ্রা হান্ট পুরুষদের স্বীকৃত ম্যাচে প্রথম রেফারিং করেন। ২০২১ সালে ক্লাব ওয়ার্ল্ড কাপ প্রতিযোগিতায় ম্যাচ পরিচালনা করেন ব্রাজিলের এদিনা বাতিস্তা নিউজা ব্যাক এবং আর্জেন্টিনার মারিয়ানা দে আলমেইদা প্রথম অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি ছিলেন। ফ্রান্সের স্টেফানি ফ্রাপার্ট ২০২১ সালের মার্চে কাতার বিশ্বকাপের বাছাইপর্বের নেদারল্যান্ডস লাটভিয়ার ম্যাচ পরিচালনা করে ইতিহাসের অংশ হয়ে গেছেন।

নারীর সামনে সুযোগ এসেছে আরো এগিয়ে যাওয়ার। পুরুষদের ফুটবল বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো দেখা যাবে নারী রেফারি। যা বিশ্বকাপের ৯২ বছরের ইতিহাসে আগে কখনো ঘটেনি। আসন্ন কাতার বিশ্বকাপ দিয়েই শুরু হচ্ছে যাত্রা। বিশ্বকাপে নারীদের রেফারিংয়ে ইতিহাসের অংশ হয়ে থাকবে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি। সম্প্রতি ২০২২ ফুটবল বিশ্বকাপের ম্যাচ অফিশিয়ালদের তালিকা প্রকাশ করেছে বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা। বিশ্বকাপের ২২তম আসরে ম্যাচ অফিশিয়ালদের তালিকায় আছেন ছয় নারী।

কাতার বিশ্বকাপে ছয় নারী অফিশিয়ালের মধ্যে তিনজন হচ্ছেন রেফারি। একজন হচ্ছেন ফ্রান্সের স্টেফানি ফ্রাপার্ট, যিনি ফিফার পুরুষ ফুটবল ম্যাচের প্রথম নারী রেফারি। এছাড়া বাকি দুজন হলেন রুয়ান্ডার সালিমা মুকাসাঙ্গা জাপানের ইওশিমি ইমাশিতা। তাদের সহকারী হিসেবে থাকবেন তিন নারীব্রাজিলের নিউজা ব্যাক, মেক্সিকোর ক্যারেন দিয়াজ মেদিনা যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাথরিন নেসবিত।

বিশ্বকাপ সামনে রেখে ১২৯ জন অফিশিয়ালের নাম ঘোষণা করেছে ফিফা। যাদের মধ্যে ৩৬ জন রেফারি, ৬৯ জন অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি ২৪ জন ভিডিও রেফারি।

২১ নভেম্বর শুরু হচ্ছে কাতার বিশ্বকাপ। ফিফা

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন