শনিবার | জুলাই ০২, ২০২২ | ১৮ আষাঢ় ১৪২৯  

টকিজ

প্রশংসিত শিরোনামহীনের ‘পারফিউম’

ফিচার প্রতিবেদক

২৫ বছর পূর্ণ করল দেশের জনপ্রিয় ব্যান্ড শিরোনামহীন। বিগত দিনে অসংখ্য শ্রোতাপ্রিয় গান উপহার দিয়েছে দলটি। সম্প্রতি এল তাদের নতুন গান ভিডিও পারফিউম, যা প্রকাশিত হওয়ার পর যথারীতি সাড়া ফেলছে শ্রোতা দর্শক মহলে। দলটি জানাচ্ছে, বিগত আড়াই বছরের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফসল পারফিউম প্রথম দিনেই শিরোনামহীনের ইউটিউব চ্যানেলে গানের ভিউ লক্ষাধিক। জিয়াউর রহমানের ভিডিও নির্দেশনায় মিলিয়ন ড্রিমসের ভিএফএক্স স্ক্রিনে অনন্য মাত্রা যোগ করেছে বলে মনে করছে দর্শক, যা এর আগে কোনো মিউজিক ভিডিওতে দেখা যায়নি।

গানের কথাগুলোর মতোই গ্রিক পুরাণের আশ্রয়ে পারফিউম-এর ভিডিও প্রশংসিত হচ্ছে। গ্রিক পুরাণ অনুযায়ী ডিডেলাসের ছেলে ইকারাস পিঠে মোমের পাখা বেঁধে ওড়ার সময় সূর্যের খুব কাছে চলে গিয়েছিলেন। সূর্যের আলোর তাপে মোমের পাখা গলে যায় তার মৃত্যু হয়। বিষয়টি যেমন গানের কথার প্রসঙ্গ ধরে আছে ভিডিওতে, তেমেনি আছে গ্রিক দেবতা পোসাইডন মেডুসার কথাও। পুরাণ অনুযায়ী চুলের বদলে জীবন্ত বিষধর সাপ থাকত মেডুসার মাথায়। তার চোখের দিকে কেউ তাকালে সে পাথরে পরিণত হতো।

 মেডুসা চরিত্রে রেশ রহমানের উপস্থিতি সর্বত্র আলোচিত এবং প্রশংসিত হচ্ছে। কনক আদিত্য এবং অরণ্য রানার চরিত্রগুলো ভীষণ ভিন্নধর্মী, এক কথায় ভিডিওটি যারাই দেখছেন, স্ক্রিন থেকে চোখ সরাবার উপায় নেই বলছেন দর্শক। ব্যান্ডটির সদস্যদেরও দেখা গিয়েছে গ্রিক পুরাণের বিভিন্ন চরিত্রের সাজে।

ওয়েস্টিনের পুলসাইডে মনোরম পরিবেশে, ড্রিমক্যাস্টের আয়োজনে গান এবং অনুভূতি শেয়ার করার এক ইভেন্টের মাধ্যমে অ্যালবাম লঞ্চিং সেলিব্রেট করে শিরোনামহীন

বামবা প্রেসিডেন্ট মাইলস ব্যান্ডের দলনেতা হামিন আহমেদ লঞ্চিংয়ের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয়ার সময় মঞ্চে আরো উপস্থিত ছিলেন ওয়ারফেজের মনিরুল আলম টিপু, অর্থহীনের সাইদুস খালেদ সুমন, শিশির আহমেদ, আর্টসেলের লিংকন, সাজু, ক্রিপটিক ফেইটের সাকিব, মাইলসের তূর্য প্রমুখ।

সবাই শিরোনামহীন ব্যান্ডের সঙ্গে তাদের একান্ত অনুভূতি, কোলাবোরেশনের অনুভূতির অভিজ্ঞতা শেয়ার করেন। উৎসবমুখর রাতে ব্যান্ড তারকাদের মিলনমেলায় আলোকিত হয় ওয়েস্টিন। সেই সঙ্গে ইন্টারন্যাশনাল পারফিউম ব্র্যান্ড আজমান-এর বাংলাদেশে লঞ্চিং ঘোষণা করেন বিশ্বখ্যাত তারকা পারফিউম মেকার হোসান।

জিয়াউর রহমান বলেন, কৈশোরে গান শোনার সময় হাতে অ্যালবাম থাকত। গানের লিরিক পড়তাম, মিলিয়ে নিতাম। গানের নাম, ব্যান্ডের নাম, গানের স্রষ্টা জেনে নেয়ার আগে তৃপ্তি পেতাম না, গান এতিম হয়ে যেত না। ডিজিটাল যুগে শুধু গানটাই আপনমনে বেজে যায়। গানের নাম, ব্যান্ড, স্রষ্টা, পরিচয় সবকিছুই চলে গিয়েছে অন্ধকারে, লিরিক মেলানোর প্রশ্নই আসে না। সেই কবেকার ভায়োলিন, বেজে যায় কতদিন...কালেক্টররা সেই দিন ফিরে পাওয়ার অপেক্ষা করে প্রতিদিন। আমার কাছে মনে হয়েছে, ফিলোসফিটা ক্যাসেট বা সিডি নয়, আমি মধুর অভিজ্ঞতা ফিরে পেতে চাই। লিরিক, কর্ড মেলাতে চাই গান শোনার সময়। এই অ্যালবাম কিউআর কোড ধরে আপনাকে গানে নিয়ে যাবে, সঙ্গে মেলাবেন লিরিক, কর্ড। পেছনের গল্প, ব্যান্ড মেম্বারদের অভিজ্ঞতা, কষ্ট, আনন্দের অনুভূতি কিংবা দুষ্প্রাপ্য কিছু মুহূর্তের ক্যান্ডিড ছবূিশ্রোতা হিসেবে রকম সব বিস্ময় অপেক্ষা করছে স্যুভেনির বইয়ে। আট ফরমার, প্রতি পৃষ্ঠা চার রঙের আর্ট কার্ডের বই যা আপনাকে সরাসরি গানে ভ্রমণ করায়, বিপন্ন সময়কে পাল্টে দেয়। শিরোনামহীন বর্তমানে ২৯ মে ভারত কনসার্ট এবং এর পরই মাসব্যাপী ইউরোপের বেশকিছু দেশে কনসার্ট সফর নিয়ে ভীষণ ব্যস্ত বলে জানান ব্যান্ডের সদস্যরা।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন