সোমবার | মে ২৩, ২০২২ | ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ 

আন্তর্জাতিক খবর

কভিড প্রাদুর্ভাব দেশের জন্য মহাবিপর্যয়: কিম জং-উন

বণিক বার্তা অনলাইন

ছবি বিবিসি

কভিড মহামারীকালীন দুই বছর সারা পৃথিবী বিপর্যস্ত হয়ে পড়লেও স্বাভাবিক ছিল উত্তর কোরিয়া। তবে করোনাভাইরাসের আক্রমণ থেকে দেশটি শেষ রক্ষা পায়নি। উত্তর কোরিয়ায় প্রথম কভিড আক্রান্ত রোগি শনাক্ত হয় গত বৃহস্পতিবার। এর পরদিনই অর্থাৎ গতকাল শুক্রবার প্রথম কডিভজনিত মৃত্যুর খবর পায় দেশটি। দ্রুত ছড়িয়ে পড়া কভিড-১৯ প্রাদুর্ভাবকে উত্তর কোরিয়ার জন্য ‘মহা বিপর্যয়’ বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির শীর্ষ নেতা কিম জং-উন। আজ শনিবার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কেসিএনএ’র বরাত দিয়ে এ কথা জানিয়েছে বিবিসি।

কিম বলেন, প্রতিষ্ঠার পর থেকে এই মারাত্মক মহামারীর বিস্তার আমাদের দেশের জন্য ভয়াবহতম অশান্তির কারণ হয়ে দাঁড়াবে। এই সংকটের জন্য আমলাতান্ত্রিক ও চিকিৎসা ব্যবস্থায় অব্যবস্থাপনাকে দায়ী করেন তিনি। কভিড মোকাবেলায় প্রতিবেশি চীনের মতো অন্যান্য দেশের নেয়া পদক্ষেপগুলো থেকে শিক্ষা নেয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

গত বৃহস্পতিবার দেশটিতে প্রথম কভিড রোগি শনাক্ত হওয়ার পর শনিবার একটি জরুরি সভার আয়োজন করেন কিম। সভায় দেশজুড়ে ভাইরাসটির ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে সর্বাত্মক যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন তিনি। তবে বিশেষজ্ঞদের বিশ্বাস গত কয়েকদিন ধরেই ভাইরাসটি এরই মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে।

শনিবার রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, গত কয়েক সপ্তাহে প্রায় পাঁচ লাখ লোক জ্বরে আক্রান্ত হয়েছে। দেশটিতে করোনা পরীক্ষা সরঞ্জামের অপ্রতুলতা থাকায় বেশির ভাগ রোগিকেই শনাক্ত করা যাচ্ছে না। গত বৃহস্পতিবার ও শুক্রবারে এ ধরনের রোগির সংখ্যা যেভাবে বাড়তে তাতে দেশটিতে কভিড প্রাদুর্ভাবের ঘোর আশঙ্কা রয়েছে।

এদিকে আড়াই কোটি জনসংখ্যার দেশ উত্তর কোরিয়ায় করোনাভাইরাসের টিকাদান কর্মসূচি আশানুরূপভাবে গ্রহণ করা হয়নি। দেশটির স্বাস্থ্যখাতও তেমন উন্নত নয়। ফলে করোনাভাইরাসের বড় ধরনের প্রাদুর্ভাব ঘটলে উত্তর দেশটিতে ভয়াবহ পরিণতি নেমে আসতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন