রবিবার | মে ২২, ২০২২ | ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ 

আন্তর্জাতিক ব্যবসা

২০২৫ সালের মধ্যে ইভি ব্যাটারি সংকটের আশঙ্কা

বণিক বার্তা ডেস্ক

কার্বন নিঃসরণ কমাতে বিদ্যুচ্চালিত গাড়ির (ইভি) ভোক্তা চাহিদা বাড়ছে। তবে তুমুল চাহিদার মুখে ইভির ব্যাটারি সংকটও দেখা দেয়ার আশঙ্কা রয়েছে। বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান স্টেল্যান্টিসের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কার্লোস ট্যাভারেস বলেন, ২০২৫ সালের মধ্যে ব্যাটারি সংকটের কারণে ইভি শিল্প খাতে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে। খবর দ্য গার্ডিয়ান।

নেদারল্যান্ডসভিত্তিক গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান স্টেল্যান্টিস। পিজিয়াও, ফক্সহল, ফিয়াট, ক্রিসলার জিপ ব্র্যান্ডের মালিকানা সংস্থা স্টেল্যান্টিস। প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, আগামী বছরগুলোয় ইভি বিক্রি বাড়ানোর পরিকল্পনা করছে গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো। উল্লেখযোগ্য পরিমাণে নতুন বিনিয়োগ আসছে ইউরোপের ব্যাটারি উৎপাদন কারখানা গিগাফ্যাক্টরিগুলোয়। তবে ব্যাটারি উৎপাদনের বর্তমান পরিকল্পনা তুমুল চাহিদা পূরণে ব্যর্থ হতে পারে।

কভিড-১৯ মহামারীর প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকেই কম্পিউটারের চিপ সংকট দেখা দেয় অটোমোবাইল শিল্প খাতে। বৃহৎ পরিসরে ভোক্তা চাহিদা উপস্থিত থাকা সত্ত্বেও গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রাংশের অভাবে কয়েকশ কোটি পাউন্ড বিক্রি ব্যাহত হয় গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর।

কার্লোস ট্যাভারেসের আশঙ্কা, অটোমোবাইল শিল্প খাতের জন্য ব্যাটারি সরবরাহ সংকট পরবর্তী সবচেয়ে বড় প্রতিবন্ধকতা হয়ে দাঁড়াতে পারে। ২০৩০ সাল নাগাদ শুধু ব্যাটারিচালিত ইভি বিক্রির লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে স্টেল্যান্টিস। এরপরে জীবাশ্ম জ্বালানিচালিত গাড়ি বিক্রি বন্ধ করবে সংস্থাটি।

সম্প্রতি অটোমোবাইল শিল্প সম্মেলনে কার্লোস ট্যাভারেস বলেন, আমার ধারণা ২০২৫-২৬ সালের মধ্যে ব্যাটারি সরবরাহ সংকট দেখা দেবে। আর যদি ব্যাটারি সরবরাহ সংকট না থাকে, তবে পশ্চিমা দেশগুলোর ওপর নির্ভরশীল হয়ে পড়বে এশিয়া। এটা খুব সহজেই অনুমেয়। যে গতিতে সবাই ব্যাটারি উৎপাদন সক্ষমতা বাড়াচ্ছে, তা ক্রমে শেষ প্রান্তে এসে ঠেকেছে। দ্রুত পরিবর্তনশীল গাড়ি ব্যবসার জন্য যা আশঙ্কাজনক।

কার্লোস ট্যাভারেসের মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান স্টেল্যান্টিস তার পূর্বসূরি পিজিয়াও ইভি প্রযুক্তির গাড়ি নির্মাণের বিষয়ে বরাবরই সতর্ক করেছেন। জীবাশ্ম জ্বালানির দূষণ এড়াতে ইভি উৎপাদনের দিকে ঝুঁকছে গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো। তবে এর কারণে উদ্ভূত সমস্যাগুলোর বিষয়ে সতর্ক করেছেন স্টেল্যান্টিসের সিইও। প্রতিষ্ঠানটির উৎপাদন বাড়াতে ১০ কোটি পাউন্ড বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত জানিয়েছে স্টেল্যান্টিস।

এদিকে খনিজ সম্পদ থাকায় নেদারল্যান্ডসের বিরোধী দেশগুলোর ওপর নির্ভরশীলতা বাড়ারও আশঙ্কা রয়েছে। জীবাশ্ম জ্বালানির বদলে পরিবেশবান্ধব ইভি উৎপাদন করলে ভূরাজনৈতিক ঝুঁকির আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন কার্লোস ট্যাভারেস।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন