শনিবার | জুলাই ০২, ২০২২ | ১৮ আষাঢ় ১৪২৯  

টকিজ

জুরির কাছে সহিংসতার অভিযোগ নাকচ করলেন জনি ডেপ

ফিচার ডেস্ক

জনি ডেপ জানিয়েছেন, প্রাক্তন স্ত্রী অ্যাম্বার হার্ডের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করতে তিনি বাধ্য হয়েছেন। ডেপের বিরুদ্ধে অ্যাম্বারের করা নির্যাতনের অভিযোগও অস্বীকার করেন তিনি। জনি বলেছেন, ‘আমার লক্ষ্য কেবল সত্যটা প্রকাশ। কেননা এ অভিযোগ প্রতিনিয়ত আমার ক্ষতির কারণ হয়েছে। আমার সঙ্গে প্রতিদিন যে মানুষগুলোর দেখা হয়েছে, তারা ভেবেছে আমি একজন প্রতারক।’

এ কথার পাশাপাশি হার্ডকে কোনো রকম শারীরিক আঘাত বা যৌন নির্যাতনের বিষয়টি সরাসরি অস্বীকার করেছেন। বিষয়টিকে অস্বস্তিকর এবং জঘন্য উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এসব অভিযোগের কোনো সত্যতা নেই। এমন কোনো কিছু কখনো হয়নি।’

মঙ্গলবার প্রথম শুনানির দিন তিনি ৪ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে সাক্ষ্য দেন। তিনি তার প্রথম জীবন এবং ক্যারিয়ারের শুরুর দিকের নানা বিষয়ে কথা বলেছেন। অ্যাম্বার হার্ড সম্পর্কে তার কিছু টেক্সট মেসেজকে প্রমাণ হিসেবে উপস্থাপন করা হলে তিনি সে সম্পর্কেও ব্যাখ্যা দিয়েছেন। তিনি স্বীকার করেছেন যে পুরনো এ মেসেজগুলো এখন তার কাছে লজ্জাজনক মনে হয়। ‘সময়ের ঝোঁকে এবং তীব্র কষ্টের কারণে আমি এ ভুলগুলো করে ফেলেছি।’ তিনি এও যোগ করেন যে হার্ডের ডিভোর্স ফাইল করার সময় থেকেই তিনি নিজের কথাগুলো বলার চেষ্টা করে আসছেন। তিনি সে সুযোগটির অপেক্ষা করছিলেন।

প্রায় এক সপ্তাহ আগে শুরু হওয়া বিচারে এর আগে ডেপ কথা বলেননি। কেবল অ্যাম্বার হার্ডের আইনজীবীদের করা অপমানের মুখে চুপ করে ছিলেন। এরপর মঙ্গলবার নিজের ছেলেবেলায় নিপীড়নের শিকার হওয়ার কথা জানান। এও বলেন, ‘বাবা হওয়ার পর আমি নিশ্চিত করেছি আমার সন্তান যেন এমন কিছুর শিকার না হয়।’

২০১৫ সালে বিয়ের সময় থেকে অ্যাম্বার এবং জনি বেশ ভালো সময় কাটিয়েছেন। তিনি নিজেই বলেন যে অ্যাম্বার যত্নশীল এবং স্মার্ট ছিল। অ্যাম্বার তাকে বুঝতেনও। তাদের মধ্যে সংগীত ও সাহিত্যের পছন্দের ক্ষেত্রে কিছু মিল ছিল। কিন্তু জনি ডেপের ভাষায়, ‘বছর ঘুরতে না ঘুরতে সে অন্য কোনো মানুষ হয়ে গেল।’ জনি ডেপ অবশ্য জানিয়েছেন, তিনি এক ধরনের পেইন কিলার এবং ছোটবেলা থেকে তার মায়ের ‘নার্ভ পিল’ গ্রহণ করতেন। কিন্তু তিনি এর প্রভাব কাটিয়ে উঠেছেন।

২০১৮ সালে অ্যাম্বার হার্ড ওয়াশিংটন পোস্টে একটি আর্টিকেল লেখেন। সেখানে নিজেকে, ‘ঘরোয়া সহিংসতার প্রতিনিধি’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন। জনি ডেপ এবার আদালতে বলেছেন, ‘মিস হার্ডের এসব অভিযোগ সাজানো।’

সূত্র: দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস


এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন