মঙ্গলবার | জুন ২৮, ২০২২ | ১৪ আষাঢ় ১৪২৯  

খবর

ঢাকা ও খুলনার জয়

তামিমের সেঞ্চুরিতে ম্লান সিমন্স

ক্রীড়া প্রতিবেদক

চলতি বিপিএলে গতকাল প্রথম সেঞ্চুরি করেন সিলেটের লেন্ডল সিমন্স। যদিও পরে ঢাকার তামিম ইকবালও করেন সেঞ্চুরি, তাতে বিফলেই যায় সিমন্সের অনবদ্য এই ইনিংসটি ছবি: বিসিবি

চলতি বিপিএলে ঢাকায় প্রথম পর্বের আট ম্যাচে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রান ছিল রনি তালুকদারের ৪২ বলে ৬১। গতকাল শুরু হওয়া চট্টগ্রাম পর্বে প্রথম ম্যাচেই চমক। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে এক ম্যাচেই এলো দু-দুটি সেঞ্চুরি। তামিম ইকবালের খেলা ৬৪ বলে ১১১ রানের হার না মানা ইনিংসে বিফলেই গেল লেন্ডল সিমন্সের ৬৫ বলে খেলা ১১৬ রানের রাজসিক ইনিংস। দুই সেঞ্চুরির ম্যাচে সিলেট সানরাইজার্সকে উইকেটে হারিয়েছে মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকা।

ঢাকায় সর্বোচ্চ চার ম্যাচ খেলে সবচেয়ে বাজে ফল করে পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে থাকে তারকাখচিত দল মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকা। মিরপুরে তিন ম্যাচে হেরে যায় মাহমুদউল্লাহর দল। এবার তামিমের অনবদ্য এক সেঞ্চুরি জাগিয়ে দিল ঢাকাকে। জয়ে টেবিলে উন্নতি করল দলটি। ম্যাচে দুই জয়ে পয়েন্ট নিয়ে মাহমুদউল্লাহর দল উঠে এসেছে চতুর্থ স্থানে। দুই ম্যাচে দুই জয় তুলে নেয়া কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স টেবিলের শীর্ষে, আর কাল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে উইকেটে হারানো খুলনা টাইগার্স তিন ম্যাচে পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দুইয়ে।

তামিমের সেঞ্চুরিতে ভর করেই ১৭৬ রানের বড় টার্গেটটা সহজ বানিয়ে ফেলল ঢাকা। ৬১ বলে ক্যারিয়ারের চতুর্থ টি২০ সেঞ্চুরি তুলে নিলেন তামিম। বলাবাহুল্য, আন্তর্জাতিক টি২০-তে বাংলাদেশের একমাত্র সেঞ্চুরিয়ানও তামিম। আগামী ছয় মাস তিনি দেশের জার্সিতে টি২০ না খেলার ঘোষণা দেয়ার পরের দিনই বিপিএলে করলেন অনবদ্য এক সেঞ্চুরি। এর মাধ্যমে নির্বাচকদের হয়তো কোনো বার্তাই দিলেন তিনি।

আফগান তারকা মোহাম্মদ শাহজাদকে নিয়ে দুর্দান্ত সূচনা করা তামিম হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন মাত্র ২৮ বলে। পরের ৫০ রান করেন তিনি ৩৩ বলে। আর দলকে জিতিয়ে যখন মাঠ ছাড়েন, তখন তার নামের পাশে জ্বলজ্বল করছিল ৬৪ বলে ১১১ রান। ১৭টি বাউন্ডারি ছক্কায় মনোহরী ইনিংসটি সাজিয়েছেন দেশের ইতিহাসে সেরা ওপেনিং ব্যাটসম্যান। শাহজাদকে নিয়ে ওপেনিং জুটিতে ১৬. ওভারে ১৭৩ রান যোগ করেন তামিম। জুটি সিলেটকে কোনো সুযোগই দেননি। দুজনের কর্তৃত্বে ঢাকা জিতেছে তিন ওভার হাতে রেখেই।

এর আগে ক্যারিবিয়ান তারকা লেন্ডল সিমন্স রান উৎসব করেন সাগরিকায়। ১৪টি বাউন্ডারি ছক্কার সাহায্যে ১১৬ রান করেন তিনি। যদিও লোয়ার অর্ডারের ব্যর্থতায় সংগ্রহটা ২০০ পার করতে পারেনি তার দল। দলের পক্ষে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৮ রান করেন এনামুল হক বিজয়।

এবারের বিপিএলে আগের সর্বোচ্চ রান ছিল মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকার বিপক্ষে খুলনার রনি তালুকদারের ৬১। কাল ঢাকার বিপক্ষেই ১৩তম ওভারে সিমন্স সেই অঙ্ক পেরিয়ে যান ৪২তম বলে। এবারের বিপিএল দশম ম্যাচে এসে দেখল প্রথম শতক। প্রথম ৫০- পৌঁছাতে ৩৪ বল লেগেছে সিমন্সের, দ্বিতীয় ৫০- সিমন্স পৌঁছেছেন ২৫ বলে। আউট হওয়ার আগে মুগ্ধতা ছড়িয়েছেন ৬৫ বলে ১৪ চার ছক্কার ১১৬ রানের ইনিংসে।

গতকাল দিনের প্রথম ম্যাচে আগে ব্যাটিং করে উইকেটে ১৪৩ রান তোলে চট্টগ্রাম। জবাবে বল বাকি থাকতে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় খুলনা। ৪৭ বলে ৫৮ রান করে ম্যাচসেরা হন খুলনার আন্দ্রে ফ্লেচার। তার আগে বল হাতে ১৮ রানে তিন উইকেট নেন খুলনার লংকান বোলার থিসারা পেরেরা।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন


×