রবিবার | মে ২২, ২০২২ | ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ 

খবর

আইইডিসিআরের গবেষণা

এক বছর পর্যন্ত দেখা দেয় কভিড-১৯ পরবর্তী উপসর্গ

বণিক বার্তা অনলাইন

কভিড-১৯ রোগীদের সংক্রমণ পরবর্তী বিভিন্ন উপসর্গ নিয়ে গবেষণা চালিয়েছে রোগতত্ত্ব রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)। গবেষণাটি গতকাল বুধবার প্রকাশ করে আইইডিসিআর। 

গবেষণায় বলা হয়, অনেক কভিড-১৯ রোগী সংক্রমণের পরবর্তী সময়ে বিভিন্ন উপসর্গে ভুগে থাকেন, যা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) কভিড-১৯ পরবর্তী উপসর্গ নামে অবহিত করেছে। প্রাথমিক তথ্য পর্যালোচনায় দেখা যায়, উপসর্গযুক্ত কভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হওয়ার তিন মাস পর ৭৮ শতাংশ রোগীর মধ্যে কভিড পরবর্তী উপসর্গ দেখা গেছে। এছাড়া ছয় মাস পর ৭০ শতাংশ, নয় মাস পর ৬৮ শতাংশ ও একবছর পর ৪৫ শতাংশ মানুষের কভিড পরবর্তী উপসর্গ দেখা গেছে। উচ্চ রক্তচাপ ও ডায়াবেটিসসহ অসংক্রামক রোগে আক্রান্তদের কভিড পরবর্তী উপসর্গের আশংকা দুই থেকে তিন গুণ পর্যন্ত বেশি বলে জানানো হয়েছে গবেষণায়। 

গবেষণায় বলা হয়, উচ্চরক্তচাপের রোগীরা নিয়মিত ওষুধ সেবন করলে অনিয়মিত ওষুধ সেবনকারীদের তুলনায় কভিড-১৯ পরবর্তী উপসর্গে আক্রান্ত হওয়ার আশংকা ৯ শতাংশ কম। একইভাবে ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগীরা নিয়মিত ওষুধ সেবন করলে অনিয়মিত ওষুধ সেবনকারীদের তুলনায় কভিড-১৯ পরবর্তী উপসর্গে আক্রান্ত হওয়ার আশংকা ৭ শতাংশ পর্যন্ত কমে যায়।

এ অবস্থায় উচ্চরক্তচাপ ও ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগীদের কভিড-১৯ পরবর্তী উপসর্গে আক্রান্ত হওয়ার আশংকা কমাতে রেজিস্ট্রার্ড চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র মোতাবেক নিয়মিত ওষুধ সেবন করা জরুরি বলে উল্লেখ করা হয়েছে। 

আইইডিসিআর জানায়, চলমান গবেষণার মাধ্যমে ভবিষ্যৎ কভিড-১৯ পরবর্তী উপসর্গের ব্যাপারে আরো হালনাগাদ তথ্য পাওয়া যাবে। এছাড়া কভিড-১৯ প্রতিরোধে সকলকে প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পাশাপাশি পূর্ণ ডোজ কভিডের টিকা গ্রহণের পরামর্শ দিয়েছে আইইডিসিআর।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন