রবিবার | মে ২২, ২০২২ | ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ 

পণ্যবাজার

সাত বছর পর জ্বালানি তেলের দাম ৯০ ডলার ছাড়াল

বণিক বার্তা অনলাইন

প্রায় সাত বছর পর নতুন মাইলফলক ছুঁয়েছে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম। ২০১৪ সালের অক্টোবরের পর গতকাল অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম প্রথমবারের মতো প্রতি ব্যারেল ৯০ ডলার ছাড়িয়েছে। খবর রয়র্টাস। 

বিশ্লেষকরা বলছেন, ইউক্রেন ইস্যুতে রাশিয়ার সঙ্গে পশ্চিমাদের চলমান উত্তেজনা প্রকট হচ্ছে। ফলে বিশ্ববাজারে জ্বালানি পণ্যটির সরবরাহ বিঘ্নের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। এ কারণে ফের অস্থিতিশীলতার মুখে পড়েছে জ্বালানি পণ্যের বাজার। 

তথ্য বলছে, গতকাল আইসিই ফিউচারস ইউরোপে দিনের শুরুতে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের আন্তর্জাতিক বাজার আদর্শ ব্রেন্টের দাম ব্যারেলপ্রতি ৯০ ডলার ছাড়ায়, যা সাত বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। তবে কার্যদিবসের মাঝামাঝিতে বাজারদর ৮৯ দশমিক ৯৬ ডলারে নেমে আসে। এদিন আগের কার্যদিবসের তুলনায় ব্রেন্টের দাম বেড়েছে ২ শতাংশ বা ব্যারেলপ্রতি ১ ডলার ৭৬ সেন্ট। 

অন্যদিকে নিউইয়র্ক মার্কেন্টাইল এক্সচেঞ্জে (নিমেক্স) মার্কিন বাজার আদর্শ ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েটের (ডব্লিউটিআই) দাম ২ শতাংশ বেড়েছে। গতকাল বাজার আদর্শটির দাম ১ ডলার ৭৫ সেন্ট বেড়ে ব্যারেলপ্রতি ৮৭ ডলার ৩৫ সেন্টে বিক্রি হয়েছে।

এসঅ্যান্ডপি গ্লোবাল প্ল্যাটসের প্রধান ভূ-রাজনৈতিক উপদেষ্টা ও বিশ্লেষক পল শেলডন বলেন, বৈশ্বিক বাজারগুলো সরবরাহ বিঘ্ন ঘটার ভয়ে রয়েছে। জ্বালানি সরবরাহ সম্ভবত অব্যাহত থাকবে, তবে কিছু বিষয়ে ভারসাম্য নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা উড়িয়ে দেয়া যায় না।

রিস্টাডের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট অব অ্যানালাইসিস ক্লদিও গালিম্বার্টির মতে, এ অবস্থায় জ্বালানি তেলের দামের গতিপথ বদলানোর মতো একমাত্র সংস্থা হচ্ছে ওপেক। আগামী ২ ফেব্রুয়ারি বৈঠকে বসছে জ্বালানি তেল রফতানিকারক ও তাদের সহযোগী দেশগুলোর জোট ওপেক প্লাস। ওই বৈঠকে উৎপাদন বাড়ানোর বিষয়টি বিবেচনা করা হতে পারে।

সম্প্রতি ইউক্রেন সীমান্তে কয়েক হাজার সেনা মোতায়েন করেছে রাশিয়া। মস্কো যেকোনো সময় ইউক্রেন আক্রমণ করতে পারে আশঙ্কায় এরই মধ্যে কড়া নিষেধাজ্ঞার হুমকি দিয়েছে পশ্চিমা দেশগুলো। এতে ইউরোপে রাশিয়ার গ্যাস সরবরাহ বাধাগ্রস্ত হতে পারে। দেশটি বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম জ্বালানি তেল রফতানিকারকও বটে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন