শনিবার | মে ২১, ২০২২ | ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ 

খবর

গভর্নরের সঙ্গে আলোচনায় বসছে বিএবি-এবিবি

গুরুত্ব পাবে ব্যাংককর্মীর সর্বনিম্ন বেতন-ভাতাসহ স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়

নিজস্ব প্রতিবেদক

ব্যাংক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সর্বনিম্ন বেতন-ভাতা নির্ধারণ করে দিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের জারীকৃত প্রজ্ঞাপনের বিষয়ে দেশের বেসরকারি ব্যাংক উদ্যোক্তা ও শীর্ষ নির্বাহীরা মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে গতকাল বৈঠকেও বসেছিলেন তারা। বৈঠকে বাংলাদেশ ব্যাংকের সিদ্ধান্তের দ্বিমত করে বেশ কয়েকটি ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও শীর্ষ নির্বাহী বক্তব্য দিয়েছেন। ওই বৈঠক থেকে সামগ্রিক বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে আজ দুপুরে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবিরের সঙ্গে সাক্ষাত্ করার সিদ্ধান্ত এসেছে।

বেসরকারি ব্যাংক উদ্যোক্তাদের সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকস (বিএবি) ও এক্সিম ব্যাংকের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মজুমদারের সভাপতিত্বে ভার্চুয়াল সভায় এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি ও বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংকের চেয়ারম্যান মো. জসিম উদ্দিন, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের চেয়ারম্যান কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ, মার্কেন্টাইল ব্যাংকের চেয়ারম্যান মোরশেদ আলম, মেঘনা ব্যাংকের চেয়ারম্যান এইচএন আশিকুর রহমান, আল-আরাফাহ্ ইসলামী ব্যাংকের নির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান আব্দুস সামাদ লাবু, সিটি ব্যাংকের চেয়ারম্যান আজিজ আল কায়সার, প্রাইম ব্যাংকের চেয়ারম্যান তানজীল চৌধুরীসহ বিভিন্ন ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও পরিচালকরা অংশ নেন। সভায় ব্র্যাক ব্যাংকের শীর্ষ নির্বাহী সেলিম আরএফ হোসেনসহ বেশ কয়েকজন ব্যবস্থাপনা পরিচালকও অংশ নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

ভার্চুয়াল ওই সভায় ব্যাংকারদের চাকরির এন্ট্রি পর্যায়ে বেতন-ভাতা নির্ধারণ, ঋণ ও আমানতের সুদহার বেঁধে দেয়া, ছাঁটাই-পদোন্নতি, ঋণ পরিশোধে বাংলাদেশ ব্যাংকের ছাড়, পুনঃতফসিলসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়। তবে আলোচনার মূল বিষয় ছিল ব্যাংক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সর্বনিম্ন বেতন-ভাতা নির্ধারণ করে জারীকৃত বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রজ্ঞাপন প্রসঙ্গ।

২০ জানুয়ারি জারীকৃত এক প্রজ্ঞাপনে কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলেছে, ব্যাংকের এন্ট্রি পর্যায়ে একজন কর্মকর্তাকে সর্বনিম্ন ২৮ হাজার টাকা বেতন দিতে হবে। শিক্ষানবিশকাল শেষে ওই কর্মকর্তার সর্বনিম্ন বেতন হতে হবে ৩৯ হাজার টাকা। ব্যাংকের নিরাপত্তা কিংবা পরিচ্ছন্নতা কর্মীদেরও সর্বনিম্ন বেতন ২৪ হাজার টাকা দিতে নির্দেশ দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। প্রজ্ঞাপনে কর্মী ছাঁটাই ও পদোন্নতি বিষয়েও বেশকিছু নির্দেশনা দেয়া হয়।

বৈঠকে অংশ নেয়া একাধিক ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও শীর্ষ নির্বাহী বণিক বার্তাকে বলেন, গভর্নরের সঙ্গে বৈঠকের আগে নিজেদের মধ্যে আলোচনা করতে ভার্চুয়াল মাধ্যমে ওই বৈঠক আয়োজন করা হয়েছিল। বৈঠকে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাম্প্রতিককালে জারীকৃত বিভিন্ন প্রজ্ঞাপন ও বিধিনিষেধ নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আলোচনায় বেশকিছু সুপারিশও উঠে এসেছে। গতকাল গভর্নরের সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠকে বিএবি ও এবিবির পক্ষ থেকে সুপারিশগুলো তুলে ধরা হয়।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন