শনিবার | মে ২১, ২০২২ | ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ 

খবর

পুলিশ সপ্তাহে রাষ্ট্রপতি

মানুষ যেন পুলিশের কাছে এসে হয়রানির শিকার না হয়

নিজস্ব প্রতিবেদক

সেবা প্রার্থীরা যেন পুলিশের কাছে এসে হয়রানির শিকার না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে পুলিশ সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। তিনি বলেন,সাধারণ মানুষ বিপদে পড়েই আইনি সেবা পেতে পুলিশের কাছে আসে। আপনারা এসব বিপদাপন্ন মানুষের সমস্যা ও অভিযোগ মনযোগ দিয়ে শুনবেন। তাদেরকে আন্তরিকতার সঙ্গে আইনি সেবা দিতে কখনো কুন্ঠাবোধ করবেন না।

আজ মঙ্গলবার পুলিশ সপ্তাহ-২০২২ উপলক্ষ্যে দেয়া ভাষণে রাষ্ট্রপতি এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে রাষ্ট্রপতি বলেন, বৈশ্বিক করোনা মহামারিতে বাংলাদেশ পুলিশ সম্মুখযোদ্ধা হিসেবে জনগণের পাশে থেকে সেবার এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। এ সময় দেশের মানুষের সেবা, সুরক্ষা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে দায়িত্ব পালনকালে যে সকল নির্ভীক পুলিশ সদস্য জীবন উৎসর্গ করেছেন আমি তাঁদের আত্মার মাগফিরাত ও শান্তি কামনা করছি।

মো. আবদুল হামিদ বলেন, জঙ্গি ও সন্ত্রাস দমনে বাংলাদেশ পুলিশের ভূমিকা দেশে-বিদেশে ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছে। বর্তমান সরকার সরকারি সকল সেবা মানুষের দোর গোড়ায় পৌঁছাতে অঙ্গীকারাবদ্ধ। জনগণকে দ্রুততম সময়ে পুলিশি সেবা প্রদান আপনাদের অন্যতম প্রধান দায়িত্ব। জনগণের সেবা প্রাপ্তি সহজীকরণে আপনাদেরকে আরও তৎপর ও দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে। সেবা প্রত্যাশী মানুষের সমস্যার প্রতি গুরুত্ব দিয়ে তাদেরকে দ্রুত আইনি সেবা প্রদানে আন্তরিকতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করতে হবে। জনগণের সম্পৃক্ততা ছাড়া পুলিশের একার পক্ষে অপরাধ দমন সম্ভব নয়।

বাংলাদেশ পুলিশকে জনবান্ধব পুলিশ ও মানবিক পুলিশ হিসেবে গড়ে তোলার জন্য আন্তরিকভাবে সচেষ্ট থাকতে বাহিনীর সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

এসময় পুলিশ সদস্যদের দক্ষতা বাড়াতে সরকারের নেয়া বিভিন্ন কর্মসূচি ও প্রশিক্ষণের কথা উল্লেখ করেন রাষ্ট্রপতি। তিনি বলেন, উন্নত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় গবেষণা, উদ্ভাবন এবং সর্বাধুনিক প্রযুক্তির আত্মীকরণের মাধ্যমে বাংলাদেশ পুলিশকে এগিয়ে যেতে হবে। নতুন নতুন গবেষণা ও উদ্ভাবনী ক্ষেত্রে বাংলাদেশ পুলিশকে সমৃদ্ধ হতে হবে।

 

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন