রবিবার | মে ২২, ২০২২ | ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ 

আন্তর্জাতিক ব্যবসা

বিস্তৃত পুনর্গঠনের লক্ষ্য

বিশ্বজুড়ে কয়েক হাজার কর্মী ছাঁটাইয়ের পরিকল্পনা ইউনিলিভারের

বণিক বার্তা ডেস্ক

কয়েক দিন ধরেই বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে ইউনিলিভারের নির্বাহীদের মধ্যে অস্থিরতা চলছে। গত সপ্তাহে গ্ল্যাক্সোস্মিথক্লাইনের (জিএসকে) ভোক্তাপণ্য ব্যবসা কিনতে ব্যর্থ হয় প্রতিষ্ঠানটি। এরপর ভোক্তাপণ্য জায়ান্টটির শেয়ারদরে নিম্নমুখী প্রবণতা দেখা দেয়। পরিস্থিতি মোকাবেলায় স্বাস্থ্য, সৌন্দর্য পরিচ্ছন্নতা ব্যবসা সম্প্রসারণের ঘোষণা দেয়া হয়। পাশাপাশি প্রতিশ্রুতি দেয়া হয় স্বল্প লাভজনক ব্যবসা বিক্রি করারও। তবুও পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়নি। অবস্থায় চলতি সপ্তাহে কয়েক হাজার কর্মী ছাঁটাইয়ের ঘোষণা দিতে চলেছে ইউনিলিভার।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, সাম্প্রতিক অস্থিরতা মোকাবেলায় বিস্তৃত পুনর্গঠনের অংশ হিসেবে কর্মী ছাঁটাইয়ের পরিকল্পনা করেছে ইউনিলিভার। উচ্চ মুনাফার ব্যবসার কার্যক্রম বিস্তৃত করা, বিভাগভিত্তিক লক্ষ্য উন্নত করা এবং জবাবদিহিতা জোরদার করার উদ্দেশ্যে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

মারমাইট ডাভ সাবানের প্রস্তুতকারক ১০০টিরও বেশি দেশে কর্মী কমিয়ে দেবে। এক থেকে পাঁচ হাজার কর্মী ছাঁটাইয়ের মুখোমুখি হতে পারে বলে নিশ্চিত করেছে বিষয়টি সঙ্গে জড়িত একটি সূত্র।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, যুক্তরাজ্যভিত্তিক ইউনিলিভারের বিশ্বজুড়ে লাখ ৪৯ হাজার কর্মী রয়েছে। একটি বিস্তৃত পুনর্গঠনের অংশ হিসেবে কর্মী ছাঁটাইয়ের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। পদক্ষেপের মাধ্যমে আরো প্রতিযোগিতামূলক পরিচালনা মডেল গ্রহণ করা হবে। যদিও কোন দেশের কর্মীরা ছাঁটাইয়ের মুখোমুখি হবে, তা এখনো স্পষ্ট নয়। যুক্তরাজ্য আয়ারল্যান্ডে সংস্থাটির ছয় হাজারেরও বেশি কর্মী রয়েছে।

হাজার কোটি পাউন্ডের বিনিময়ে  জিএসকের ভোক্তা স্বাস্থ্য বিভাগকে কিনতে ব্যর্থ হওয়ার পরই কর্মী ছাঁটাইয়ের খবর সামনে এল। যদিও ইউনিলিভার কর্মী ছাঁটাই নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। সংস্থাটি প্রবৃদ্ধি ত্বরান্বিত করতে বিনিয়োগকারীদের ক্রমবর্ধমান চাপের সম্মুখীন হয়েছে। অবস্থায় স্বাস্থ্য, সৌন্দর্য পরিচ্ছন্নতা ব্যবসা সম্প্রসারণের ঘোষণা দেয় প্রতিষ্ঠানটি। পাশাপাশি পরিস্থিতি মোকাবেলায় স্বল্প লাভজনক ব্যবসা বিক্রির কথাও জানানো হয়। এমন ঘোষণার পরও বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আস্থা ফেরেনি।

এদিকে জেএসকে জানিয়েছে, ইউনিলিভারের প্রস্তাবটিতে প্রতিষ্ঠানটির ভোক্তা স্বাস্থ্য ব্যবসাকে মৌলিকভাবে অবমূল্যায়ন করা হয়েছে। প্যানাডল ব্যথা নিরাময় সেনসোডাইন টুথপেস্টের মতো পণ্যগুলো জিএসকের ব্যবসায়ের অন্তর্ভুক্ত। যদিও ইউনিলিভার অধিগ্রহণ প্রস্তাবের অংক বাড়াতে অস্বীকৃতি জানায়। কয়েকজন বিশ্লেষক অনুমান করেছেন, জিএসকে ব্যবসা বিক্রির জন্য হাজার কোটি পাউন্ড খুঁজছে।

কয়েক মাস ধরেই ডাভ সাবান থেকে মারমাইট পর্যন্ত হাজারো পণ্যের মালিক ইউনিলিভার প্রধান নির্বাহী অ্যালান জোপের নেতৃত্বে চাপের মধ্যে রয়েছে। প্রস্তাবের আগেও সংস্থাটির শেয়ারদর ২০১৯ সালে রেকর্ড উচ্চ পর্যায়ের চেয়ে প্রায় এক-চতুর্থাংশ পিছিয়ে ছিল।

বিষয়টি ইউনিলিভারের ব্যবস্থাপনা নিয়ে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে অস্বস্তি তৈরি হয়েছে। বিনিয়োগ ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠান ফান্ডস্মিথের প্রধান নির্বাহী টেরি স্মিথ বলেন, আরো কোনো চ্যালেঞ্জ নেয়ার আগে প্রতিষ্ঠানটির বিদ্যমান ব্যবসার অপারেটিং পারফরম্যান্সের দিকে মনোনিবেশ করা উচিত।

এদিকে মার্কিন অ্যাক্টিভিস্ট বিনিয়োগকারী নেলসন পেল্টজ ইউনিভারের ব্যবস্থাপনায় যুক্ত হওয়া নিয়ে নতুন করে চমক তৈরি হয়েছে। তার ট্রায়ান পার্টনার্স তহবিল এর আগে প্রতিদ্বন্দ্বী ভোক্তা পণ্য সংস্থা প্রক্টর অ্যান্ড গ্যাম্বল মন্ডেলিজে সংস্কার দাবি করেছিলেন। যদিও ইউনিলিভারে নেলসন পেল্টজের অংশীদারিত্ব কত বড় তা স্পষ্ট নয়। তবে তার শেয়ার কেনার সিদ্ধান্ত বিনিয়োগকারীদের খুশি করেছে। খবরের পর লন্ডনে ভোক্তাপণ্য প্রস্তুতকারক সংস্থাটির শেয়ারদর দশমিক শতাংশ বেড়েছে।

একটি নোটে বার্কলেসের বিশ্লেষকরা বলেছেন, নেলসন পেল্টজের বিনিয়োগ শিল্প বিশেষজ্ঞদের কাছে তেমন বিস্ময়কর হবে না। ইউনিলিভারের দৃষ্টিকোণ থেকে স্থিতাবস্থা একটি বিকল্প নয়। তবে এটি বিনিয়োগকারীদের শান্ত করতে পারে। কারণ এখন তাদের মনে হবে যে তারকাখ্যাত অ্যাক্টিভিস্ট বিনিয়োগকারীরা ইউনিলিভারের ব্যবস্থাপনায় যুক্ত হচ্ছেন এবং তারা আরো চাপ প্রয়োগ করবেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন