শনিবার | মে ২১, ২০২২ | ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ 

খবর

বাণিজ্যমেলা বন্ধের সুপারিশ, সিদ্ধান্ত নেয়নি মন্ত্রণালয়

বণিক বার্তা অনলাইন

নভেল করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের বিস্তার রোধে বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে সরকারকে আরো কঠোর হওয়ার পরামর্শ দিয়েছে কভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি। একই সঙ্গে বাণিজ্য মেলাসহ আসন্ন বইমেলাও আরো পিছিয়ে দেয়ার সুপারিশ করেছেন তারা। 

আজ মঙ্গলবার এসব সুপারিশ সরকারকে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ সহিদুল্লা। তবে এখনো বাণিজ্যমেলা বন্ধের সিদ্ধান্ত হয়নি বলে আজ সন্ধ্যায় বণিক বার্তাকে জানিয়েছেন রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) সচিব ও মেলার পরিচালক মো. ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী। 

তিনি বলেন, যেকোনো সিদ্ধান্ত হলে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় আমাদের জানাবে। মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত দিলে তা বাস্তবায়ন করা হবে। তবে এখনো মেলা বন্ধের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। মন্ত্রণালয় বন্ধ করলে বন্ধ, চালু করলে চালু। মেলার আর ছয়দিন বাকি আছে উল্লেখ করে তিনি জানান, সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মানতে বলা হচ্ছে। ভ্রাম্যমাণ আদালতও স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতে কাজ করছে।  

এ দিন দুপুরে কভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি সভাপতি বলেন, সংক্রমণ ঠেকাতে বিধিনিষেধ কঠোর করতে সরকারকে কয়েক দফা সুপারিশ করা হয়েছে। এসব সুপারিশের বাস্তবায়নও জরুরি। তিনি বলেন, শুধু নির্দেশনা দিলেই হবে না, এটার বাস্তব প্রয়োগও দরকার। 

বাণিজ্য মেলা সম্পর্কে ডা. মোহাম্মদ সহিদুল্লা জানান, বাণিজ্যমেলা খোলা রাখা উচিত না। এখন এইগুলোর  বাস্তব প্রয়োগ না হলে ভালো ফলাফল আসবে না। 

লকডাউনের সুপারিশ করা হবে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন প্রতিরোধে নতুন করে লকডাউন দিয়ে লাভ হবে না। এছাড়া এই মুহূর্তে হাসপাতালগুলোতেও তুলনামূলক রোগী কম। যদি হাসপাতালে রোগীর চাপ বেশি, চিকিৎসকদের ওপর চাপ তৈরি হচ্ছে, লকডাউন নিয়ে চিন্তা করা হবে।।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন