শনিবার | মে ২১, ২০২২ | ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ 

খেলা

‘একুশ’ থেকে দুই জয় দূরে নাদাল

ক্রীড়া ডেস্ক

কোর্টে লড়াকু মানসিকতার জন্য ‘ম্যাটাডোর’ নাম পাওয়া রাফায়েল নাদাল নাদাল আরেকবার অনবদ্য এক লড়াই উপহার দিলেন। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে আজ কোয়ার্টার ফাইনালে কানাডিয়ান তারকা ডেনিস শাপোভালভের বিপক্ষে শারীরিক সমস্যাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ৬-৩, ৬-৪, ৪-৬, ৩-৬, ৬-৩ গেমের জয়ে সেমিফাইনালে নাম লেখান ষষ্ঠ বাছাই খেলোয়াড়টি। ক্যারিয়ারের ২১তম গ্র্যান্ড স্লাম শিরোপা থেকে নাদাল এখন দুই জয় দূরে। 

অবশ্য জিতেও শাপোভালভের কাঠগড়ায় নাদাল। ম্যাচের মধ্যপথেই পাকস্থলীতে সমস্যা অনুভব করা নাদাল চিকিত্সকের শরণাপন্ন হন। হার শেষে ২২ বছর বয়সী শাপোভালভ অভিযোগ করেছেন, আম্পায়ার পক্ষপাতমূলকভাবে নাদালকে চিকিত্সা সুবিধা দিয়েছেন। খেলার মাঝখানে চিকিত্সার জন্য নাদাল যে সময় পেয়েছেন তা নিয়ে আম্পায়ার কার্লোস বার্নারদেসের কাছে অভিযোগও করেন তিনি। শাপোভালভ বলেন, আমি মনে করি রাফা (নাদাল) যে সময় নিচ্ছে তা পক্ষপাতদূষ্ট। জবাবে নাদাল বলেছেন, আমার বিশ্বাস, বিষয়টি নিয়ে সে ভুল ধারণা পোষণ করছে। 

দ্বিতীয় সেটের শুরুতে নাদালের সময়ক্ষেপন নিয়ে বার্নারদেসের কাছে অভিযোগ করেন শাপোভালভ। আম্পায়ার তাতে কর্ণপাত না করায় কানাডিয়ান খেলোয়াড়টি চিত্কার করে বলেন, তোমরা সকলেই দুর্নীতিগ্রস্ত। 

নাদাল অন্যায্যভাবে চিকিত্সা সুবিধা নিয়েছেন কিনা, জানতে চাইলে শাপোভালভ বলেন, অবশ্যই-১০০% নিয়েছে, ১০০%। আমি যত ম্যাচ খেলেছি সবগুলোতেই গতি ছিল, কেননা প্রতিটি পয়েন্টের পরই আম্পায়ার সতর্ক থেকেছেন। 

খেলোয়াড়রা পয়েন্টের মাঝখানে ২৫ সেকেন্ড ও দুই সেটের বিরতিতে দুই মিনিট সময় পান। এখানে নাদাল বেশি সময় নিয়েছেন বলে অভিযোগ তুললেন শাপোভালভ। 

মেলবোর্নে আজ ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় হাঁসফাস করতে দেখা যায় নাদালকে। এরপরও শেষ হাসি হেসেছেন তিনি। ২০ বারের গ্র্যান্ড স্লাম চ্যাম্পিয়ন নাদাল ২০০৯ সালে একবারই জিতেছেন অস্ট্রেলিয়ান ওপেন। মেলবোর্নে নয়বারের চ্যাম্পিয়ন নোভাক জোকোভিচ আর ২০ বারের গ্র্যান্ড স্লাম চ্যাম্পিয়ন রজার ফেদেরার না থাকায় এবার তার শিরোপা জয়ের সুবর্ণ সুযোগ তৈরি হয়েছে। 

ইতালির ম্যাত্তেও বেরেত্তিন ও ফ্রান্সের গায়েল মনফিলসের মধ্যকার ম্যাচের বিজয়ী সেমিফাইনালে নাদালের মুখোমুখি হবেন। 

এদিকে নারী এককে আমেরিকান খেলোয়াড় জেসিকা পেগুলাকে হারিয়ে সেমিফাইনালে উঠেছেন শিরোপা ফেভারিট অস্ট্রেলিয়ার অ্যাশলে বার্টি। তিনি জিতেছেন ৬-২, ৬-০ গেমে। শেষ চারে আরেক আমেরিকান ম্যাডিসন কিজের সামনে পড়েছেন বার্টি। আজকের কোয়ার্টার ফাইনালে কিজ ৬-৩, ৬-২ গেমে হারান চেক রিপাবলিকের বারবোরা ক্রেসিকোভাকে। 

আজকের এই জয়ে বার্টি নিশ্চিত করলেন, অস্ট্রেলিয়ান ওপেন শেষে তিনিই থাকছেন র্যাংকিংয়ের এক নম্বরে। 

সেমিফাইনালে ওঠার পথে মাত্র ১৭টি গেম হেরেছেন বার্টি। 

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন