সোমবার | মে ২৩, ২০২২ | ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ 

খবর

চট্টগ্রামে প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

শিকলবাহা খাল খনন শেষ হলে চট্টগ্রাম নগরীর সৌন্দর্য বাড়বে

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম ব্যুরো

চট্টগ্রামের শিকলবাহা খাল ছিল না, পুরোটাই ভরাট এবং অবৈধ স্থাপনা ছিল। সুয়ারেজ লাইন গেছে খালে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার পর পানি উন্নয়ন বোর্ড কাজ শুরু করে। খাল খনন ড্রেজিং করা হয়েছে। অনেকবার স্থানীয়দের সাবধান করা পরিবেশ অধিদপ্তর থেকে দখলদারদের জরিমানা করা হয়েছে। খননকাজ শেষ হলে খালের পানি লোকজন ব্যবহার করতে পারবে, শহরের সৌন্দর্য বাড়বে।

গতকাল কর্ণফুলী উপজেলায় চৌমুহনী নয়াহাট খাল পুনর্খনন কাজ পরিদর্শন শেষে এসব কথা বলেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক।

ডেল্টা প্ল্যানের আওতায় সারা দেশে ৫১২টি খাল পুনর্খনন করা হচ্ছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এরই মধ্যে প্রায় ৭২ শতাংশ কাজ হয়ে গেছে। ডিসেম্বরের মধ্যে প্রকল্পের কাজ শেষ করতে পারব। দ্বিতীয় ধাপে হাজার ২৬টি খাল খনন করা হবে। ধাপের কাজ শুরু করতে তিন-চার বছর সময় লাগবে। আমরা যদি ৬৪ জেলায় ছোট নদী খাল খননকাজ শেষ করতে পারি, বর্ষায় এসব নদী খালে পানি ধারণক্ষমতা বাড়বে।

সময় বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড চট্টগ্রাম পৌর বিভাগ--এর নির্বাহী প্রকৌশলী তন্ময় কুমার ত্রিপুরা, কর্ণফুলী উপজেলা চেয়ারম্যান মো. ফারুক চৌধুরী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শাহিনা সুলতানা উপস্থিত ছিলেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন