শনিবার | মে ২১, ২০২২ | ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ 

দেশের খবর

নোয়াখালী নার্সিং কলেজের ৯১ শিক্ষার্থী করোনায় আক্রান্ত

বণিক বার্তা প্রতিনিধি, নোয়াখালী

নোয়াখালী নার্সিং মিডওয়াইফাই কলেজের ৯১ শিক্ষার্থীর শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এতে আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন কলেজের প্রায় ৩০০ শিক্ষার্থী। সংক্রমণ ঠেকাতে সশরীরে পাঠদান বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। আজ থেকে অনলাইনে চালু থাকবে ক্লাস। শিক্ষার্থীরা যাতে আতঙ্কিত না হন, সে জন্য মানসিক সাপোর্টের পাশাপাশি দেয়া হচ্ছে চিকিৎসাও। নেয়া হয়েছে নানা সতর্কতা। বন্ধ রয়েছে ক্লিনিক্যালি সেবাও। তবে শিক্ষার্থীদের মধ্যে উপসর্গ কম থাকায় কিছুটা স্বস্তিতে কর্তৃপক্ষ।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ১৭ জানুয়ারি প্রথম বর্ষের এক শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করালে করোনা পজিটিভ আসে। এর পর একে একে অনেকের অসুস্থতা চোখে পড়ে কর্তৃপক্ষের। একপর্যায়ে ক্যাম্পাসের আবাসিকে থাকা ২১১ শিক্ষার্থীর প্রত্যেকের দ্রুত অ্যান্টিজেন র্যাপিড টেস্টের মাধ্যমে নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এদের মধ্যে ৯১ জনের শরীরেই ধরা পড়ে করোনা। এমন পরিস্থিতে আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়েন শিক্ষার্থীরা।

একাধিক শিক্ষার্থী জানান, অল্প কয়েকজনকে তাদের অভিভাবক নিয়ে গেছেন। বেশির ভাগই ক্যাম্পাসের আবাসিক হলে অবস্থান করছেন। তবে যারা আক্রান্ত তাদের আলাদা করে রাখা হয়েছে। এখনো যারা সুস্থ রয়েছেন বা সংক্রমিত হননি তারাও ভিন্ন ভিন্ন কক্ষে থাকছেন। আক্রান্তদের সেবা-শুশ্রূষা করছেন সুস্থ শিক্ষার্থীরা। হলে অবস্থানরত আক্রান্তদের বেশির ভাগেরই তেমন উপসর্গ না থাকায় কিছুটা স্বস্তি আছেন তারা।

২৫০ শয্যা নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স আবদুল্যাহ ফারুক জানান, নার্সিং মিডওয়াইফাই কলেজের শিক্ষার্থীরা হাসপাতালে সেবা দিতেন রোগীদের। কিন্তু একসঙ্গে এত শিক্ষার্থী করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় তাদের কাছ থেকে যে সাপোর্ট পাওয়া যেত তা বন্ধ রয়েছে। এতে রোগীদের সেবা দিতে কিছুটা বেগ পেতে হচ্ছে।

কলেজের ইনস্ট্রাক্টর ইনচার্জ খালেদা খানম জানান, বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। কর্তৃপক্ষের নির্দেশে শিক্ষার্থীদের সর্বোচ্চ সেবা দেয়া হচ্ছে। কেউ বেশি অসুস্থ হলে ২৫০ শয্যা নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হবে। তবে এখনো পর্যন্ত কোনো শিক্ষার্থী বেশি অসুস্থ হননি। তাদের নিয়মিত তদারকি রয়েছে বলেও জানান তিনি।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন