সোমবার | মে ২৩, ২০২২ | ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ 

টকিজ

কেজিএফের সঙ্গেই পাঞ্জা আমির খানের

ফিচার ডেস্ক

মুল হাইপ তোলা কন্নড় সিনেমা কেজিএফ চ্যাপ্টার টু সঙ্গেই পাঞ্জা নিলেন বলিউডের মিস্টার পারফেকশনিস্ট আমির খান। একই দিনে মুক্তি পাচ্ছে তার কাঙ্ক্ষিত সিনেমা লাল সিং চাড্ডা আগামী ১৪ এপ্রিল সিনেমাটি মুক্তির তারিখ নির্ধারণ করেছেন আমির। এতে বক্স অফিস দখলের লড়াইয়ে একই সঙ্গে মাঠে দেখা যাবে কন্নড় তারকা যশ বলি তারকা আমির খানকে।

বলিউডের মিস্টার পারফেকশনিস্ট আমির খান বিশ্বের অন্যতম সেরা অভিনেতাদের একজন। অভিনয়ে নৈপুণ্য তাকে কোটি দর্শকের হূদয়ে জায়গা করে দিয়েছে। ১৯৯৩ সালের হাম হ্যায় রাহি পেয়ার কে এবং ১৯৯৪ সালে আন্দাজ আপনা আপনা মতো সিনেমা তাকে দর্শকের নায়কে পরিণত করেছে। প্রায় তিন যুগ ধরে আমির খান মুগ্ধতার আবেশে আচ্ছন্ন করে রেখেছেন তার ভক্তদের। লাগান, রঙ দে বাসন্তী, থ্রি ইডিয়েটস আর পিকের মতো বহু বক্স অফিস হিট করা সিনেমা উপহার দিয়েছেন মিস্টার বলিউড।

আমির খানের অন্যতম সফল সিনেমার একটি লাগান, যেটি ২০০১ সালে মুক্তি পায়। সিনেমার কেন্দ্রীয় চরিত্রের পাশাপাশি প্রযোজক ছিলেন অভিনেতা। লাগান সিনেমাটি ওই বছর অস্কারের জন্য নির্বাচিত হয়েছিল। ২০০৭ সালে তারে জমিন পার সিনেমার মাধ্যমে আমির খান পরিচালক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন, যা দিয়ে নিজেকে একজন দূরদর্শী পরিচালক হিসেবে প্রমাণ করতে পেরেছিলেন। ডিসলেক্সিয়ার মতো মনোরোগের বিষয়টি তারে জমিন পার সিনেমায় উঠে এসেছিল খুব সরলভাবে।

আমির খানের কাজের ধরন বেশ আলাদা। তিনি বলিউডের অন্যান্য অভিনেতার মতো বছরে কয়েকটি গত্বাঁধা সিনেমা না করে বেশির ভাগ সময় একটি সিনেমাতেই কাজ করেন। তিনি এমন সিনেমাগুলোই বেছে নেন, যেগুলোয় সমাজের ব্যতিক্রমী বিষয়গুলো দর্শকের সামনে চলে আসে। দর্শক তার সিনেমার মাধ্যমে সুন্দর কিছু শিখতে পারে। থ্রি ইডিয়েটস আর তারে জমিন পার সিনেমাগুলোকে ধরা হয় বলিউডের মাস্টারপিস। যেগুলো দর্শককে স্বপ্ন দেখতে আর নতুন করে ভাবতে শেখায়।

বড় পর্দার পাশাপাশি ছোট পর্দায়ও কাজ করেছেন বেশ দাপটের সঙ্গে। সত্যমেভ জয়তে নামের একটি অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করেছিলেন আমির খান। সমাজের বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরা হতো অনুষ্ঠানে। সিনেমার মতো টেলিভিশন অনুষ্ঠানটিও বেশ সাড়া ফেলেছিল। কিংবদন্তি অভিনেতা শুধু তার অভিনয় দিয়ে দর্শককে মুগ্ধই করেন বিষয়টা এমন নয়, বরং তাদের ভাবনার এক নতুন জগতে নিয়ে যান। সমাজের বিভিন্ন সমস্যা এমনকি রাজনৈতিক অসংগতিগুলো তুলে ধরতেও তিনি পিছপা হননি। আমির খান অনুষ্ঠানটির মাধ্যমে সাধারণ মানুষ সমালোচকদের প্রশংসা পেয়েছিলেন। সমাজ সচেতনতামূলক বিষয়ে আমির থাকেন সবার আগে। সুন্দর সমাজ তৈরিতে তার অংশগ্রহণ এবং মানুষকে সচেতন করাটাকে নিজ দায়িত্ব মেনে কাজ করেন। কাজ আর দক্ষতার জন্যই আজ বলিউডের কিংবদন্তি হয়ে উঠেছেন।

সফল অভিনেতা, পরিচালক প্রযোজক হিসেবে অসাধারণ সব কাজের জন্য আমির খান চারটি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। ২০০৩ সালে ভারতের মর্যাদাপূর্ণ পদ্মশ্রী পদক এবং ২০১০ সালে পদ্মভূষণ পুরস্কার পান। বর্তমানে বহুল প্রত্যাশিত লাল সিং চাড্ডা সিনেমার মুক্তি নিয়ে ব্যস্ত মিস্টার পারফেকশনিস্ট।

 

সূত্র: ফিমেনিয়া

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন