বুধবার | জানুয়ারি ২৬, ২০২২ | ১২ মাঘ ১৪২৮

শেষ পাতা

শনাক্তের সংখ্যা চার হাজার ছাড়িয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত প্রতিদিনই বাড়ছে। সর্বশেষ গতকাল আরো হাজার ৩৭৮ জনের শরীরে ভাইরাসটির সংক্রমণ শনাক্ত হয়, যা গত ২০ সপ্তাহের মধ্যে সর্বোচ্চ। সর্বশেষ আরো ছয়জন কভিড-১৯ পজিটিভ রোগীর মৃত্যু হয়েছে। দেশে নভেল করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে গতকাল এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তথ্য জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে, গতকাল সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে ২৯ হাজার ৮৭১ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। নতুন শনাক্ত হওয়া রোগীদের নিয়ে দেশে মোট করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৬ লাখ হাজার ৪২। আর মারা গেছেন ২৮ হাজার ১২৯ জন করোনা রোগী।

করোনার নতুন ধরন ওমিক্রনের সংক্রমণের কারণে একদিনেই শনাক্ত বেড়েছে ৩০ শতাংশের বেশি। গতকালের চেয়ে সর্বশেষ বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছিল গত বছরের ২৬ আগস্ট। সেদিন হাজার ৬৯৮ জনের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়েছিল। এতে গত ২০ সপ্তাহ পর দৈনিক নমুনা পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ১৪ দশমিক ৬৬ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। গত বৃহস্পতিবার এই হার ১২ দশমিক শূন্য শতাংশ ছিল।

কয়েক সপ্তাহ ধরে দেশে নতুন করে করোনা রোগী শনাক্ত শনাক্তের হার বাড়ছে। ডেল্টা ধরনের সংক্রমণের কারণে গত বছরের মাঝামাঝি দেশে করোনায় মৃত্যু, রোগী শনাক্ত শনাক্তের হার বেড়েছিল। গত মাসের প্রথম দিকেও দেশে করোনা শনাক্তের হার শতাংশের ঘরেই ছিল। তবে ডিসেম্বরের দ্বিতীয়ার্ধে এসে সংক্রমণের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা দেখা যায়। গত মাসের শেষদিকে যেখানে দৈনিক রোগী শনাক্ত পাঁচশর ঘরে ছিল, সেখানে ধারাবাহিকভাবে বেড়ে সংখ্যা দুই হাজার ছাড়িয়ে যায় গত সোমবার। এর এক সপ্তাহের মধ্যেই দৈনিক রোগী শনাক্ত হাজার ছাড়িয়ে গেল।

সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে এরই মধ্যে বিধিনিষেধ আরোপ করেছে সরকার। সব ধরনের সামাজিকরাজনৈতিক, ধর্মীয় অনুষ্ঠান, সমাবেশ বন্ধসহ ১১ দফা নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এছাড়া ঘরের বাইরে অবশ্যই মাস্ক পরাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা নিশ্চিত করতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হচ্ছে। সর্বশেষ মারা যাওয়া ছয়জনের মধ্যে চারজন নারী দুজন পুরুষ। তাদের মধ্যে তিনজন ঢাকা, দুজন চট্টগ্রাম একজন রাজশাহী বিভাগের বাসিন্দা ছিলেন।

বাংলাদেশে নভেল করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল ২০২০ সালের মার্চ। আর গত ১২ জানুয়ারি রোগীর সংখ্যা ১৬ লাখ ছাড়িয়ে যায়। এর মধ্যে গত ২৮ জুলাই দেশে রেকর্ড ১৬ হাজার ২৩০ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়। ২০২০ সালের ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যু হয়। গত বছর ডিসেম্বর কভিডে মোট মৃত্যু ২৮ হাজার ছাড়িয়ে যায়। এর মধ্যে গত ১০ আগস্ট দুই দিনই সর্বোচ্চ ২৬৪ জন করে করোনা রোগীর মৃত্যু হয়।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহানে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ শনাক্ত হয়। এরপর মাত্র দুই মাসের ব্যবধানে শতাধিক দেশে ভাইরাসটির সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়লে ২০২০ সালের ১১ মার্চ করোনাকে বৈশ্বিক মহামারী ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন