বুধবার | জানুয়ারি ২৬, ২০২২ | ১২ মাঘ ১৪২৮

দেশের খবর

আন্দোলন ও আইনি পদক্ষেপের হুঁশিয়ারি

বরিশালে পদোন্নতিবঞ্চিত অর্ধশত কলেজ শিক্ষক

বণিক বার্তা প্রতিনিধি, বরিশাল

বরিশালে অর্ধশত কলেজ শিক্ষকের কাঙ্ক্ষিত পদোন্নতি আটকে গেছে। কম্পিউটার শিক্ষা (আইসিটি) বিষয়ের প্রভাষকরা ১৬ বছর ধরে চাকরি করেও সহকারী অধ্যাপক পদে উন্নীত হতে পারছেন না।

শিক্ষকরা অভিযোগ করেছেন, মাধ্যমিক উচ্চ শিক্ষা বরিশাল অঞ্চলের (মাউশি) কর্মকর্তাদের স্বেচ্ছাচারিতায় আটকে গেছে তাদের পদোন্নতি। অথচ একই সময়ে ঢাকা, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রামের কোনো কোনো শিক্ষকের পদোন্নতি হয়েছে। অবস্থার অবসান চেয়ে পদোন্নতিবঞ্চিত শিক্ষকরা গতকাল সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

বরিশাল বিভাগীয় কম্পিউটার শিক্ষক সমিতির আয়োজনে বেলা সাড়ে ১১টায় নগরীর বাকশিস কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনের আহ্বায়ক আগরপুর ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক মাহবুবুর রহমান।

লিখিত বক্তব্যে প্রভাষক মাহবুবুর রহমান বলেন, বরিশাল বিভাগে তার মতো ৫০ জন কম্পিউটার শিক্ষা (আইসিটি) বিষয়ক প্রভাষক আছেন, যারা ১৬-২০ বছর চাকরি করে এখন সহকারী অধ্যাপক পদে উন্নীত হবেন। বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জনবল কাঠামো এমপিও নীতিমালা-২০২১ অনুযায়ী প্রভাষক পদ থেকে সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতির জন্য তারা মাউশির মহাপরিচালক বরাবর আবেদন করেন। কিন্তু মাউশি বরিশাল অঞ্চলের পরিচালকের কার্যালয় ১৯৯১ সালের একটি চিঠির বরাত দিয়ে এরই মধ্যে ৩০-৪০ জনের আবেদন বাতিল করে দেয়া হয়েছে। বাকিদেরও একই অজুহাতের ফাঁদে পড়তে হচ্ছে। অথচ তাদের সমযোগ্যতার একাধিক প্রভাষক সহকারী অধ্যাপক হিসেবে পদোন্নতি পেয়েছেন। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ২০০০ সালের ৩১ আগস্টের নীতিমালা অনুযায়ী কম্পিউটার শিক্ষা বিষয়ে তারা ৫০ জন শিক্ষক প্রভাষক হিসেবে বিভিন্ন কলেজে কর্মরত।

সংবাদ সম্মেলনে প্রভাষক মাহবুবুর রহমান বলেন, মাউশি বরিশাল অঞ্চলের স্বেচ্ছাচারিতার কারণে তারা পদোন্নতিবঞ্চিত হচ্ছেন। তারা ১৫ দিনের মধ্যে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মাউশি মহাপরিচালককে লিখিতভাবে অবহিত করবেন। অবিলম্বে ৫০ জন শিক্ষককে প্রভাষক থেকে সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতি দেয়া না হলে আইনি পদক্ষেপ নেয়ার হুঁশিয়ারিও দেন তারা। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত শিক্ষক-কর্মচারী ঐক্য ফ্রন্ট বরিশাল বিভাগীয় আহ্বায়ক অধ্যাপক মহসিন উল ইসলাম হাবুল জানান, শিক্ষা মন্ত্রণালয় মাউশি নানাভাবে শিক্ষকদের হয়রানি করছে। এই শিক্ষকরা ১৬ বছর ধরে চাকরি করলেও এখন নানা অজুহাতে তাদের পদোন্নতি আটকে দেয়া হয়েছে। এভাবে হয়রানি করলে আন্দোলন আইনি যুদ্ধে নামবেন বরিশালের শিক্ষকরা।

সময় উপস্থিত ছিলেন বরিশাল বিভাগীয় কম্পিউটার শিক্ষক সমিতির যুগ্ম আহ্বায়ক সৈয়দ বজলুল হক কলেজের প্রভাষক খোকন রায়, ইসলামিয়া কলেজের প্রভাষক সুলতানা পারভীন, মুলাদীর চরকালেখান আদর্শ ডিগ্রি কলেজের আনিচুর রহমান, আগৈলঝাড়ার ছয়গ্রাম স্কুল অ্যান্ড কলেজের মুন্সি . আলিম প্রমুখ।

ব্যাপারে মাধ্যমিক উচ্চ শিক্ষা বরিশাল অঞ্চলের (মাউশি) পরিচালক অধ্যাপক মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, ১৯৯৯ সালের ২৮ অক্টোবর শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক চিঠি অনুযায়ী নির্দিষ্ট ছয়টি বিষয়ের বাইরের শিক্ষকরা পদোন্নতি পাবেন না। তিনি ২০০০ সালের ৩১ আগস্টের নীতিমালাও দেখেছেন কিন্তু তা গ্রহণ করা যাবে না। তিনি বলেন, জটিলতায় পড়া শিক্ষকদের পরামর্শ দিয়েছেন, সরকার ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে মন্ত্রণালয়ের ওই চিঠি বাতিল করে নতুন আদেশ জারি করতে পারলে তারা পদোন্নতি পাবেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন