বুধবার | জানুয়ারি ২৬, ২০২২ | ১২ মাঘ ১৪২৮

আন্তর্জাতিক খবর

লকডাউন ও জাতীয় শোকের সময়ও ডাউনিং স্ট্রিটে পার্টি!

বণিক বার্তা ডেস্ক

এবার আরো বেকায়দায় পড়েছেন ইংল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। করোনাভাইরাসের বিধিনিষেধ লঙ্ঘন করে ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটের বাগানে ২০২১ সালে আরো দুটি পার্টি আয়োজনের খবর দিয়েছে আন্তর্জাতিক গণ্যমাধ্যম দি টেলিগ্রাফ। ব্রিটিশ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের স্বামী ডিউক অব এডিনবার্গ প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্যের আগের দিন পার্টির আয়োজন করে ডাউনিং স্ট্রিটের কর্মকর্তারা। প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের দুই কর্মীর বিদায় উপলক্ষ্যে আয়োজিত এ পার্টিতে ৩০ জনের মত মানুষের সমাগম হয়েছিল। সকাল পর্যন্ত চলা এ পার্টিতে মদ ছাড়াও নাচ গানের আয়োজন ছিল এমন খবর প্রকাশ করেছে টেলিগ্রাফ। তবে এ বিষয়ে বৃটিশ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় কোনো মন্তব্য করেনি। খবর বিবিসির।

টেলিগ্রাফ বলছে, বরিস জনসনের যোগাযোগ শাখার সাবেক পরিচালক জেমস স্ল্যাক দ্য সান পত্রিকার উপসম্পাদক হিসাবে যোগ দিয়েছিলেন। তার যোগদানের আগে সহকর্মীদের পক্ষ থেকে তাকে ধন্যবাদ জানাতে এ বিদায়ী পার্টির আয়োজন করা হয়। প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত ফটোগ্রাফারের বিদায় উপলক্ষ্যে ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে আরেকটি পার্টির আয়োজন করা হয়েছে। দুটি পার্টিতে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের কর্মীদের মাধ্যমে মদ সরবরাহ করা হয়। সকাল পর্যন্ত চলা এ পার্টিকে উপভোগ্য করতে গানের তালে তালে আলোর ঝলকানির ব্যবস্থা করা হয়েছিল। ওই সময় প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন অবকাশ যাপনের ছুটিতে থাকায় ওই পার্টিতে উপস্থিত ছিলেন না। তবে জাতীয় শোক ও ১৭ এপ্রিল ব্রিটিশ স্থানীয় সময় বিকাল তিনটায় ডিউক অব এডিনবার্গ প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্যের আগের দিন ১৬ এপ্রিল ডাউনিং স্ট্রিটে রাতভর এমন পার্টির আয়োজনে নতুন বির্তকের জন্ম দিয়েছে জনসন প্রশাসন। 

এবিষয়ে ডাউনিং স্ট্রিটের একজন মুখপাত্র বলেছেন, জেমস স্ল্যাকের বিদায় উপলক্ষে তাকে ধন্যবাদ জানাতেই আমরা একত্রিত হয়েছি।  তিনি (জেমস স্ল্যাক) আমাদের কাজে দীর্ঘসময় ধরে সহযোগিতা করেছেন। তবে অন্য আরেকটি পার্টি, মদপান ও নাচগানের বিষয়ে তিনি কোন মন্তব্য করেননি। 

১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে আয়োজিত পার্টির দায় প্রধানমন্ত্রী এড়াতে পারেন না উল্লেখ লেবার পার্টির উপপ্রধান নেত্রী অ্যাঞ্জেলা রেনার জানান, ডিউক অব এডিনবার্গ প্রিন্স ফিলিপের মৃত্যুতে সারা দেশ যখন শোকে কাতর। যেখানে রানী নিজেই জাতীয় স্বার্থে অনেক নিয়মনীতি পালন থেকে বিরত ছিলেন, তখন ডাউনিং স্ট্রিটে এমন পার্টি আয়োজন নিয়ে কথা বলার মত কোনো শব্দ খুঁজে পাচ্ছি না। 

লিবারেল ডেমোক্র্যাটদের নেতা, স্যার এড ডেভিও প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের পদত্যাগ দাবি করে টুইট করেছেন। টুইটে তিনি বলেন, স্বামীকে হারিয়ে ব্রিটিশ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ যখন শোকে মুহ্যমান তখন  প্রধানমন্ত্রী ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে পার্টি করছেন!

এদিকে প্রথম লকডাউনের সময় ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে আয়োজিত পার্টি অংশ নেয়ায় প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন সবার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। কিন্তু এতে সন্তুষ্ট নন খোদ তার দলের নেতারাই। তারা  বরিসের পদত্যাগ দাবি করেছেন। বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষমতাসীন দল কনজারভেটিভ পার্টির বেশ কয়েকজন জ্যেষ্ঠ নেতা বরিস জনসনের পদত্যাগ চেয়েছেন; যদিও উপপ্রধানমন্ত্রী ডোমিনিক রাব বরিসের পক্ষ নিয়েছেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন