বুধবার | জানুয়ারি ২৬, ২০২২ | ১২ মাঘ ১৪২৮

আন্তর্জাতিক ব্যবসা

উড়োজাহাজ সরবরাহে এয়ারবাসের পেছনে বোয়িং

বণিক বার্তা ডেস্ক

নতুন উড়োজাহাজ সরবরাহের ক্ষেত্রে প্রতিদ্বন্দ্বী এয়ারবাসের চেয়ে পিছিয়ে রয়েছে বোয়িং। তবে ৭৩৭ ম্যাক্স উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত মহামারীজনিত কারণে দুটি হতাশাজনক বছরের পর বিক্রি বেড়েছে মার্কিন উড়োজাহাজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটির। ২০২১ সালে ৩৪০টি বাণিজ্যিক উড়োজাহাজ সরবরাহ করেছে বোয়িং। সংখ্যা ২০২০ সালের চেয়ে প্রায় দ্বিগুণ। অন্যদিকে সময়ে ৬১১টি উড়োজাহাজ সরবরাহ করেছে এয়ারবাস। নিয়ে টানা তৃতীয় বছরের মতো বোয়িংকে ছাড়িয়ে শীর্ষ নির্মাতা হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে ইউরোপীয় সংস্থাটি।

এপির খবরে বলা হয়েছে, উৎপাদন ত্রুটির কারণে বোয়িংয়ের উড়োজাহাজ সরবরাহ বাধাগ্রস্ত হয়েছে। গত বছরের বেশির ভাগ সময়ই সংস্থাটির ৭৮৭ ড্রিমলাইনার চালান বাধার মুখোমুখি হয়েছে। উড়োজাহাজ সরবরাহ নির্মাতা কোম্পানিগুলোর জন্য নগদ অর্থের একটি গুরুত্বপূর্ণ উৎস। কারণ এয়ারলাইনসগুলো সাধারণত ক্রয়মূল্যের একটি বড় অংশ উড়োজাহাজ হাতে পাওয়ার পর প্রদান করে।

বোয়িং জানিয়েছে, উড়োজাহাজের ক্রয়াদেশ ২০১৮ সালের পর সর্বোচ্চ উচ্চতায় পৌঁছেছে। এরপর ৭৩৭ ম্যাক্স গ্রাউন্ডিং মহামারীজনিত কারণে দুই বছর উড়োজাহাজ বিক্রি কমে গেছে। শিকাগোভিত্তিক প্রতিষ্ঠানটি ডিসেম্বরে ৮০টি এবং ২০২১ সালে ৯০৯টি উড়োজাহাজের ক্রয়াদেশ পেয়েছে। বাতিলকরণ বাদ দেয়ার পর বোয়িং ৪৭৯টি নিট ক্রয়াদেশের কথা জানিয়েছে। সংখ্যা এয়াবাসের নিট ক্রয়াদেশ ৫০৭টির চেয়ে কিছুটা কম।

গত সপ্তাহে অ্যালিজেন্ট এয়ার থেকে একটি বড় ক্রয়াদেশ পেয়েছে বোয়িং। মার্কিন স্বল্প ব্যয়ের উড়োজাহাজ পরিবহন সংস্থাটি কেবল এয়ারবাসের জেট কিনত। গত মাসে এয়ার ফ্রান্স-কেএলএম অস্ট্রেলিয়ার কান্তাস এয়ারলাইনসের থেকে ক্রয়াদেশ জিতে এয়ারবাসকে টেক্কা দিচ্ছে মার্কিন নির্মাতাটি।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন