বুধবার | জানুয়ারি ২৬, ২০২২ | ১২ মাঘ ১৪২৮

আন্তর্জাতিক ব্যবসা

কেনাকাটায় ডিজিটাল লেনদেনে ঝুঁকছেন ইউএইর ভোক্তারা

বণিক বার্তা ডেস্ক

প্রতিনিয়ত বদলে যাচ্ছে মানুষের কেনাকাটার ধরন। নগদ অর্থ ছেড়ে ডিজিটাল পেমেন্টে ঝুঁকছেন ভোক্তারা। নতুন একটি গবেষণায় উঠে এসেছে, ২০২৪ সালের মধ্যে সংযুক্ত আরব আমিরাতের (ইউএই) অর্ধেকেরও বেশি ভোক্তা কেনাকাটার ক্ষেত্রে নগদ অর্থ পরিহার করবেন। ইউএইর হার ৫২ শতাংশ হলেও বিশ্বজুড়ে হারের গড় ৪১ শতাংশ। ইলেকট্রনিক আর্থিক পরিষেবা সংস্থা ভিসার পরিচালিত এক গবেষণায় তথ্য উঠে এসেছে। খবর দ্য ন্যাশনাল।

গবেষণার তথ্য বলছে, অংশগ্রহণকারীদের তিন ভাগের দুই ভাগ (৬৮ শতাংশ) আরব আমিরাতবাসী নিশ্চিত করেছেন, তারা গত কয়েক মাসে বেশকিছু কেনাকাটা বাতিল করে দিয়েছেন। কারণ ডিজিটাল পদ্ধতিতে ব্যবসায়ীরা পেমেন্ট নিচ্ছিলেন না।

আর্থিক প্রযুক্তিভিত্তিক সংস্থাটি জানিয়েছে, নভেল করোনাভাইরাস মহামারী ইউএইর অনলাইনে পেমেন্ট করার প্রবণতা আরো বাড়িয়ে দিয়েছে। এখন তা অভ্যাসে পরিণত হচ্ছে। দেশটির ৯৪ শতাংশ ভোক্তা জানিয়েছেন, তারা চলতি বছরে ডিজিটাল পেমেন্ট চ্যানেলগুলো ২০২১ সালের তুলনায় আরো বেশি ব্যবহার করতে চান।

সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ওমানে নিযুক্ত ভিসার জেনারেল ম্যানেজার শাহেবাজ খান বলেন, পেমেন্ট এখন আর শুধু বিক্রি সম্পন্ন করার বিষয় নয়, এটি একটি সাধারণ নিরাপদ অভিজ্ঞতা তৈরি করছে। যেখানে বিভিন্ন চ্যানেলজুড়ে একজনের ব্র্যান্ডকে প্রতিফলিত করা হবে।

২০২১ সালের ডিসেম্বরে ওয়েকফিল্ড রিসার্চের পরিচালিত ভিসার জরিপে যুক্তরাষ্ট্রের এক হাজার প্রাপ্তবয়স্কের সাক্ষাত্কার নেয়া হয়। সংযুক্ত আরব আমিরাত, কানাডা, জার্মানি, হংকং, আয়ারল্যান্ড, রাশিয়া সিঙ্গাপুরের আরো ৫০০ জন অংশ নেন ওই জরিপে। গবেষণাটিতে হাজার ২৫০ জন ক্ষুদ্র ব্যবসার মালিকের ওপরও জরিপ চালানো হয়। তাছাড়া এসব দেশেরই ১০০ জন চাকরিজীবী ডিজিটাল অর্থনীতি নিয়ে নিজেদের অনুভূতি প্রকাশ করেন গবেষকদের কাছে।

কভিড-১৯ মহামারীর সময়ে যে বিষয়গুলোয় অনেক বেশি পরিবর্তন এসেছে বৈশ্বিক পেমেন্ট পদ্ধতি সেগুলোর একটি। কারণ ওই সময়ে মানুষ কেনাকাটা, পড়াশোনা অনলাইনে কাজ করার জন্য ডিজিটাল প্লাটফর্মের ওপর অনেক বেশি নির্ভরশীল হয়ে পড়েছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতের ৭০ শতাংশ ক্ষুদ্র ব্যবসা ভোক্তাদের চাহিদা পূরণে ২০২৪ সালের মধ্যে নগদ অর্থবিহীন হওয়ার পরিকল্পনা করছে। কেউ কেউ এরই মধ্যে সেই অবস্থায় পৌঁছে গেছে। বৈশ্বিকভাবে সেই হারটা ৫৯ শতাংশ। মহামারীর সময়ে শুধু অনলাইন বিক্রি দিয়েই ৯৯ শতাংশ ব্যবসা টিকে ছিল। বর্তমানে দেশটির মোট রাজস্ব আয়ের ৫৮ শতাংশই আসছে -কমার্স থেকে।

আগামী মাসগুলোয় অগ্রগতিকে আরো মাত্রা দিতে ডিজিটাল পেমেন্ট, ক্রিপ্টোনির্ভর পেমেন্ট এবং আন্তঃসীমান্ত ব্যবসার দিকে নজর দিচ্ছে ছোট ব্যবসাগুলো।

জরিপে অংশ নেয়া আরব আমিরাতের ব্যবসায়ীদের ৯৫ শতাংশ মনে করেন, নতুন ধারা গ্রহণ করা তাদের উন্নয়নের জন্য অপরিহার্য হবে। আর এসব ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীর ৯৩ শতাংশ তাদের ব্যবসার ভবিষ্যৎ নিয়ে আশাবাদী। ২০২২ সালে এসব ব্যবসায়ী কিছুটা হলেও ডিজিটাল পেমেন্ট গ্রহণ করতে চান।

তবে ভিসা বলছে, সংযুক্ত আরব আমিরাতের ব্যবসায়ীদের বড় একটি অংশ (৯৬ শতাংশ) আন্তঃসীমান্ত পেমেন্টকে চ্যালেঞ্জিং এবং কঠিন মনে করেছেন। তাই এক্ষেত্রে আরো দ্রুততম এবং নিরাপদ পেমেন্ট সমাধান খুঁজছেন ব্যবসায়ীরা।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন