বৃহস্পতিবার | জানুয়ারি ২৭, ২০২২ | ১৪ মাঘ ১৪২৮

টকিজ

এখন কাভি খুশি কাভি গমের বাজেট হতো ৫০০ কোটি রুপি!

ফিচার ডেস্ক

‘কাভি খুশি কাভি গম’ সিনেমার দৃশ্য

১৪ ডিসেম্বর ২০ বছর পূর্ণ করেছে করণ জোহরের কাভি খুশি কাভি গম। বলিউডের ছয়জন বড় তারকাকে এক ছাতার নিচে এনেছিলেন তরুণ পরিচালক করণ জোহর। চলচ্চিত্রটি সব বিবেচনাতেই ছিল জাঁকজমকে পূর্ণ। অমিতাভ বচ্চন, জয়া বচ্চন, শাহরুখ খান, কাজল, হূতিক রোশন, কারিনা কাপুরতিন প্রজন্মের ছয়জন বড় তারকাকে চুক্তিবদ্ধ করেন করণ। ছবির কিছু শুটিং হয়েছিল মিসরে এবং এটাও একটা রেকর্ড, কারণ এর আগে কখনো কোনো বলিউডের ছবির শুটিং মিসরে হয়নি। এতে বেড়েছিল সিনেমার বাজেটও। সে সময়ের হিসাবে করণ দর্শকদের ভিজ্যুয়ালি মুগ্ধ করতে টাকা ঢেলেছেন পানির মতো। সেট নির্মাণে যেমন ছিল সেরাটা করার চেষ্টা, তেমনি তারকাদের কস্টিউম যেন গ্ল্যামারাস হয় সেদিকেও নজর ছিল তার।

নিজের আত্মজীবনী অ্যান আনসুইটেবল বয় বইতে কাভি খুশি কাভি গম ছবির বাজেট নিয়ে বিস্তারিত লিখেছেন করণ—‘২০০১ সালে নির্মিত সিনেমার বাজেট ছিল ৫০ কোটি রুপি, যা এখনকার ৫০০ কোটি রুপির সমান। সে সময় বলিউডের ছবিতে অভিনয় শিল্পীদের মোট পারিশ্রমিক থাকত সাধারণত কোটি রুপি, এমন সময়ে কোনো পরিচালক ৫০ কোটি রুপি দিয়ে সিনেমা বানাননি।

করণ আরো যোগ করেন, যুগে এমন ছবি বানানো বাজেট জোগান দেয়াটা অসম্ভব। আজকের দিনে যদি আপনি একই তারকাদের নিয়ে ঠিক সেই সিনেমাটা নির্মাণ করতে চান, তাহলে সেটা বাজেটে কুলাবে না। ছবি মুক্তিও দেয়া যাবে না, কারণ পরিমাণ বিনিয়োগ তুলে আনা সম্ভব নয়।

করণ জোহর সৌভাগ্যবান ছিলেন, বড় বাজেটে কাভি খুশি কাভি গম নির্মাণ করে আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েননি তিনি। সিনেমাটি ৫৫ দশমিক ৬৫ কোটি রুপি আয় করে। সে আমলে আয় রীতিমতো রেকর্ডভাঙা। বলা হয়, সে আমলে এটি বলিউডের তৃতীয় সর্বোচ্চ আয়ের সিনেমা। তখন কাভি খুশি কাভি গমের সামনে ছিল ১৯৯৪ সালের হাম আপকে হ্যায় কউন, যার আয় ছিল ৭২ কোটি রুপি এবং ২০০১ সালেই মুক্তি পাওয়া গদরএক প্রেম কথা, যার আয় ছিল প্রায় ৭৭ কোটি রুপি। এসব হিসাব ভারতের অভ্যন্তরীণ বক্স অফিসের। দেশের বাইরে আয়ে গদরকে বহু গুণে ছাড়িয়ে যায় কাভি খুশি কাভি গম এবং ৪২ কোটি রুপি আয় করে।

 সূত্র: বলিউড হাঙ্গামা

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন