রবিবার | আগস্ট ১৪, ২০২২ | ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯  

লাইফস্টাইল

শীতপোশাকের বাহারি বাজার

শর্মিলা সিনড্রেলা

কুয়াশার চাদর মুড়ি দিয়ে দেশের অন্যান্য অংশে শীত এসে গেছে বেশ আগেই। তবে ঢাকা শহরে হেমন্ত পেরিয়ে কেবল আসি আসি করছে শীত। আর এসময়েই বাজার ভরে উঠেছে নানান ঘরানার শীতপোশাকে।

শীতপোশাক বাছাইয়ের ক্ষেত্রেও এখন মাথায় রাখা হচ্ছে স্টাইল। শিশু থেকে শুরু করে ছেলে ও মেয়েদের আলাদা আলাদা শীতপোশাক পাবেন বাজার ঘুরলেই। 

এবারের শীতে লা রিভ চেয়েছে নিজেদের একটু নতুনভাবে উপস্থাপন করতে। লা রিভের ডিজাইনার মারুফা ইয়াসমিন জানালেন সে কথাই। তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক ফ্যাশন ধারা ও দেশের হালকা শীতকে মাথায় রেখেই এবারের ডিজাইনগুলো করা হয়েছে। মেয়েদের জন্য লা রিভের কাছে পাওয়া যাবে বোম্বার জ্যাকেট, সিঙ্গেল ব্রেস্টেড জ্যাকেট, ডাবল ব্রেস্টেড জ্যাকেট, শ্রাগ ও পঞ্চ।

নিজেদের কালেকশন নিয়ে সারা লাইফস্টাইলের ডিজাইনার শামীম রহমান বলেন, বরাবরের মতো এবার শীতেও আমরা সবার জন্য ভালো কালেকশন নিয়ে এসেছি। এবার আমাদের মূল আকর্ষণ জ্যাকেট।

সারা লাইফস্টাইলে পাবেন বোম্বার জ্যাকেট, বাইকার জ্যাকেট, ফেক ডাউন জ্যাকেট আর রিয়াল ডাউন জ্যাকেট। পাবেন কিছু এলাকাভিত্তিক জ্যাকেটও। শামীম রহমান জানান, যেসব এলাকায় ভারী শীত পড়ে সেখানকার জন্য ভারী জ্যাকেট আর হালকা শীতপ্রবণ এলাকার জন্য হালকা জ্যাকেট নিয়ে এসেছে সারা লাইফস্টাইল।

ডিজাইন, মোটিফ ও ফেব্রিকের ব্যবহারে মুন্সীয়ানা দেখতে পাবেন এসব শীতপোশাকে। এবারে ভিন্নতা এসেছে রংয়ের ব্যবহারেও। এবারে ভারমিলন রেড বা গোধুলির লাল রঙকে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে বলেই জানালেন ডিজাইনার মারুফা। পাশাপাশি কিছু নিয়ন কালার, ব্রাইট কালার ও আরথি টোন নিয়েও কাজ করা হয়েছে।

পোশাকগুলো তৈরিতে কটন, ডেনিম, সাটিন, সিল্ক ফিনিশ ফেব্রিক ব্যবহার করা হয়েছে। মারুফা বলেন, মেয়েদের পোশাকে আরও ব্যবহৃত হয়েছে ভেলভেট ফিনিশ কটন, জর্জেট, ভিসকস, টাফেটা ফেব্রিক। ছেলেদের শীতপোশাকে এবার লা রিভের মুল আকর্ষণ শর্ট স্লিভ সোয়েটার। তাছাড়া জ্যাকেট, ব্লেজার, সুট ও অন্যান্য রেগুলার পোশাকগুলো তো আছেই। বাচ্চাদের কালেকশনে ব্রাইট কালার, নিয়ন কালারে কার্টুন ক্যারেক্টার নিয়ে নকশা করা হয়েছে বলেই জানান এই ডিজাইনার।

শামীম রহমানও জানালেন তাদের শীতপোশাকের খুঁটিনাটি। তিনি বলেন, আমরা ইস্টার্ন ও ওয়েস্টার্ন বেজে ফিউশন করে জ্যাকেট কালেকশন করি। আমাদের জ্যাকেটে টাফেটা, পলেস্টার, ডেনিম ফেব্রিক ব্যবহার করা হয়েছে। মেয়েদের ডেনিম কুর্তিতেও আমরা ভালো প্রতিক্রিয়া পেয়েছি। সারার পোশাক সংগ্রহের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি মাথায় রাখা হয় কোয়ালিটি। এক্সপোর্ট কোয়ালিটি মেইনটেইন করি আমরা।  

বড় বড় শোরুমে তো বটেই, ছোট ছোট দোকানেও পাবেন বাহারি শীতপোশাক। এসব পোশাকের দাম বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই নির্ভর করবে মানের উপর। শীত সামলাতে বাজার ঘুরে সামর্থ্য অনুযায়ী বেছে নিলেই হবে পছন্দের শীতপোশাক।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন