শনিবার | জানুয়ারি ২৯, ২০২২ | ১৬ মাঘ ১৪২৮

আন্তর্জাতিক খবর

কভিড-১৯

নতুন ধরন শনাক্তে এশিয়া-ইউরোপ সীমান্তে কড়াকড়ি

বণিক বার্তা অনলাইন

দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত বি.১.১.৫২৯ ধরনের কারণে সীমান্তে নিয়ন্ত্রণ কড়াকড়ি করেছে বেশ কয়েকটি দেশ। যুক্তরাজ্য, সিঙ্গাপুর, জাপান সীমান্তে ভ্রমণ নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে। বাতিল করা হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার যেকোনো ধরনের ফ্লাইট। 

আজ শুক্রবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে এ তথ্য দেয়া হয়েছে। প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, ইউরোপীয় ইউনিয়নও দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে ফ্লাইট বাতিলের বিষয়টি বিবেচনা করছে। যুক্তরাজ্যে আসা নামিবিয়া, জিম্বাবুয়ে, বতসোয়ানা, লেসোথো এবং এসোয়াতিনির  সব ফ্লাইট স্থগিত করা হচ্ছে। এ ছাড়া ভারতের সব রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলকে সতর্ক করেছে দেশটির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

এখন পর্যন্ত নভেল করোনাভাইরাসের যে কয়টি ধরন শনাক্ত হয়েছে, তাদের মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত  বি.১.১.৫২৯ ধরণটি সবচেয়ে বেশি জিনের বিন্যাস বদলানো সংস্করণ। ফলে ধরনটি নিয়ে বিশ্বব্যাপী উদ্বেগ বাড়ছে। এরই মধ্যে করোনাভাইরাসের নতুন ধরনটি নিয়ে আজ শুক্রবার বৈঠক ডেকেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। 

বিজ্ঞানীরা করোনার এ নতুন ধরন সম্পর্কে জানার চেষ্টা করছেন উল্লেখ করে খবরে আরো বলা হয়, এ নিয়ে শঙ্কাও প্রকাশ করেছেন তারা। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) বলেছে, নতুন রূপটির প্রভাব বুঝতে কয়েক সপ্তাহ সময় লাগবে। কারণ, এটি কতটা সংক্রমণযোগ্য তা নির্ধারণ করতে কাজ করছেন বিজ্ঞানীরা। এখন পর্যন্ত ভ্যারিয়েন্টটির ১০০ সিকুয়েন্সের খবর পাওয়া গেছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অন্য ধরনগুলোর মতো এরও একটি গ্রিক নাম দেয়া হবে।

দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত  বি.১.১.৫২৯ ধরণটি এতবার রূপ পরিবর্তন করেছে যে এক বিজ্ঞানী এটিকে ভয়ানক আখ্যা দিয়েছেন। ধরনটি কত দ্রুত ছড়ায় বা এটি কভিড প্রতিরোধী টিকার বলয় এড়িয়ে যেতে পারে কিনা- কোনো ধারণা পাওয়া যায়নি। মন্দের ভালো এই যে, ধরনটিতে আক্রান্ত রোগীও এখন পর্যন্ত খুব বেশি শনাক্ত হয়নি।

যুক্তরাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাজিদ জাভিদ বলেছেন, প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, এই ভ্যারিয়েন্ট আরো দ্রুত ছড়ায়। আর এখন যে ভ্যাকসিন চালু আছে, তা এর বিরুদ্ধে খুব বেশি কার্যকর হবে না। 

করোনাভাইরাসের নতুন ধরন নিয়ে বিজ্ঞানীরা ‘গভীর ভাবে উদ্বিগ্ন’। তবে এ বিষয়ে আরো তথ্য প্রয়োজন। করোনার নতুন ধরনের সংক্রমণ রুখতে সতর্কতার অংশ হিসেবে ছয়টি দেশকে রেড লিস্টে রাখা হয়েছে। 

ভারতে দক্ষিণ আফ্রিকা, হংকং ও বতসোয়ানা থেকে আগতদের করোনা পরীক্ষার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কারণ, এ তিন জায়গায় এখন পর্যন্ত মোট ৫৯ জনের শরীরে নতুন ধরনের এ ভাইরাসটি শনাক্ত করা হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন