বৃহস্পতিবার | ডিসেম্বর ০২, ২০২১ | ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

আন্তর্জাতিক ব্যবসা

ক্রিপ্টোকারেন্সি

সীমিত সংখ্যক বিনিয়োগকারীকে অনুমোদন দিতে পারে ভারত

বণিক বার্তা ডেস্ক

ক্রিপ্টোকারেন্সিকে আর্থিক সম্পদ হিসেবে চিহ্নিত করার বিষয়ে দেয়া একটি প্রস্তাব বিবেচনা করছে ভারত সরকার। মূলত ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের সুরক্ষাসংক্রান্ত আলাপে প্রস্তাব দেয়া হয়। খবর দ্য প্রিন্ট।

দেশটির সংসদ অধিবেশন ২৯ নভেম্বর শুরু হচ্ছে। সেখানে -সংক্রান্ত একটি বিল উত্থাপনের কথা রয়েছে। বিলটি নিয়ে আলোচনার এক পর্যায়েই ক্রিপ্টোকারেন্সির বিষয়টি উঠে আসে। বলা হয়, ধরনের ডিজিটাল মুদ্রায় বিনিয়োগের জন্য একটি নির্দিষ্ট সীমা বেঁধে দেয়া যেতে পারে। যদিও বিষয়ে এখনো চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি।

প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, বিলে সব ধরনের বেসরকারি ক্রিপ্টোকারেন্সির ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হবে। কেবল প্রযুক্তিগত কারণে কিছু ব্যতিক্রম থাকতে পারে।

এমন অনিশ্চয়তার রেশ পড়েছে ভারতের অন্যতম ক্রিপ্টোকারেন্সি এক্সচেঞ্জ ওয়াজিরএক্স প্লাটফর্মে, যেখানে বেচাকেনা প্রায় ২০ শতাংশ কমেছে। বলা হচ্ছে, বিটকয়েন ক্র্যাকেনের ক্ষতির পরিমাণ আরো বেশি।

রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়া ডিজিটাল মুদ্রা সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ করতে চায়। কেন্দ্রীয় ব্যাংকটি মনে করে, এটি দেশের সামষ্টিক অর্থনীতি আর্থিক স্থিতিশীলতাকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে। অন্যদিকে সরকার আগামী বাজেটে ক্রিপ্টোকারেন্সির ওপর কর আরোপের কথাও ভাবছে।

যেহেতু বিষয়টি নিয়ে দুই ধরনের বক্তব্য উঠে এসেছে, তাই কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর শক্তিকান্ত দাস বলেন, এটি নিয়ে আরো গভীর আলোচনার প্রয়োজন রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির অফিসও বিষয়টি সক্রিয়ভাবে বিবেচনা করছে। এর আগে গত মাসে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, ক্রিপ্টোকারেন্সিকে অর্থ পাচার বা সন্ত্রাসে অর্থায়নের পথ হতে দেয়া হবে না।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন