শনিবার | নভেম্বর ২৭, ২০২১ | ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

খেলা

হেরেও ম্যানসিটির সাথে নকআউটে পিএসজি

ক্রীড়া ডেস্ক

আগে গোল করে ফিরতি দেখায়ও জয়ের সম্ভাবনা জাগিয়েছিল পিএসজি। কিন্তু এগিয়ে গিয়েও পরে দুই গোল হজম করে ইতিহাদ স্টেডিয়াম থেকে হার মেনে ফিরেছে প্যারিসিয়ানরা।

উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচটিতে ম্যানচেস্টার সিটির কাছে ২-১ গোলে হারে পিএসজি। গ্রুপের আরেক ম্যাচে বেলজিয়ান ক্লাব ব্রুজ ৫-০ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছে জার্মান ক্লাব আরবি লাইপজিগের কাছে। তাতে করে হেরেও ম্যানসিটির সাথে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলো নিশ্চিত করেছে পিএসজি। বিদায় ঘটেছে লাইপজিগ-ব্রুজের।

এদিকে অখ্যাত শেরিফ তিরাসপুলের কাছে হারে রিয়াল মাদ্রিদকে কম সমালোচনা সহ্য করতে হয়নি। নিজেদের মাঠে প্রথম পর্বের সেই হারের ক্ষতে এবার বেশ ভালোভাবেই প্রলেপ দিয়েছে কার্লোস আনচেলত্তির দল। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ফিরতি পর্বে মলদোভান ক্লাবকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে শেষ ষোলোতে জায়গা করে নিয়েছে স্প্যানিশ জায়ান্টরা। একই সময়ে লিভারপুল ২-০ গোলে পরাজিত করে পোর্তোকে। এসি মিলান ১-০ গোলে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদকে হারিয়েছে। পর্তুগালের ক্লাব স্পোর্টিং সিপির কাছে ৩-১ গোলে হারে বরুশিয়া ডর্টমুন্ড। শাখতার দোনেত্স্ককে ২-০ গোলে হারায় ইন্টার মিলান। আয়াক্সের কাছে ২-১ ব্যবধানে হারে বেসিকতাস।

পার্ক দি প্রিন্সেসে প্রথমবারের মুখোমুখিতে ২-০ গোলে ম্যাচ জিতেছিল পিএসজি। কিন্তু ইতিহাদ স্টেডিয়ামে বল দখলে রেখে ম্যান সিটি শুরু থেকে আক্রমণে দাপট দেখিয়েছে।

ম্যাচের ৫ মিনিটে স্বাগতিকরা প্রথম সুযোগ নষ্ট করে। রিয়াদ মাহরেজের ক্রসে রদ্রির হেড প্রতিহত করেন ডিফেন্ডার। একটু পরই মাহরেজের ডান পায়ের শট রুখে দিয়ে দলকে ম্যাচে রাখেন গোলকিপার কেইলর নাভাস।

৯ মিনিটে পিএসজি আক্রমণ হেনেও গোল পায়নি। নেইমারের শট ব্যর্থ হয় প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারের প্রতিহতে। আবারো ম্যানসিটির একের পর এক আক্রমণ। মাহরেজ একাই দুটো সুযোগ নষ্ট করেন। গুনদোগন ও জিনশেনে্কাও পারেননি লক্ষ্যভেদ করতে।

বিরতির পর অবশ্য পিএসজি এগিয়ে যায়। ৫০ মিনিটে গোল পান কিলিয়ানে এমবাপ্পে। আন্দ্রে হেরেরার সঙ্গে ওয়ান টু খেলে মেসি ক্রস বাড়িয়েছিলেন, তা একজনের শরীরে লেগে এমবাপ্পে পেয়ে যান। ফরাসি তারকা ডান পায়ের নিচু শটে জালে বল জড়িয়ে দিতে ভুল করেননি।

৬৩ মিনিটে রহিম স্টার্লিং ম্যাচে সমতা ফেরান। গ্যাব্রিয়েল জেসুসের সহায়তায় এই ইংলিশ তারকা কাছের পোস্ট দিয়ে বাঁ পায়ের শটে লক্ষ্যভেদ করেন। ডি মারিয়া ও নেইমার সুযোগ পরবর্তিতে সুযোগ নষ্ট করে দলকে এগিয়ে নিতে পারেননি।

বরং ৭৬ মিনিটে আবারো গোল হজম করে অতিথিরা! এগিয়ে যায় ম্যানসিটি। বার্নার্ডো সিলভার সহায়তায় জেসুস ডান পায়ের শটে কেইলর নাভাসকে হারান। সমর্থকদের মুখে তখন চওড়া হাসি।

শেষ পর্যন্ত জেসুসের গোলে ২-১ স্কোরলাইন ধরে রেখে ইংলিশ জায়ান্টরা মাঠ ছেড়েছে।

এ গ্রুপে ম্যানচেস্টার সিটি ৫ ম্যাচে চতুর্থ জয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ সেরা। সমান ম্যাচে পিএসজি প্রথম হারে আগের ৮ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে অবস্থান করছে। আরবি লাইপজিগ ও ক্লাব ব্রুজ দু’দলেরই ৪ পয়েন্ট করে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন