শনিবার | নভেম্বর ২৭, ২০২১ | ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

দেশের খবর

সাভারে নদী সুরক্ষা ও সংরক্ষণে গণশুনানি

বণিক বার্তা প্রতিনিধি, সাভার

ঢাকার সাভার গলফ ক্লাবে গতকাল নদী সুরক্ষায় গণশুনানি অনুষ্ঠিত হয়েছে। অস্তিত্ব সংকটে সাভারের নদী: সুরক্ষা সংরক্ষণে করণীয় শীর্ষক গণশুনানির আয়োজন করে বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা) অ্যাসোসিয়েশন ফর ল্যান্ড রিফর্ম অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (এএলআরডি)

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান এমপি। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন সাভার পৌর মেয়র আব্দুল গনি, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাজহারুল ইসলাম, এএলআরডি নির্বাহী পরিচালক শামসুল হুদা, নদীরক্ষা কমিশনের উপপরিচালক আক্তারুজ্জামান তালুকদার, পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মোসব্বের হোসেন মোহাম্মদ রাজিব প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই একটি প্রমাণ্যচিত্র প্রদর্শনের মাধ্যমে সাভারের নদী, খাল অন্যান্য জলশয় দখল দূষণচিত্র তুলে ধরা হয়। গণশুনানিতে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন নদী পরিবেশ উন্নয়ন পরিষদের সদস্য অধ্যক্ষ . মো. আবু সাঈদ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডা. এনামুর রহমান বলেন, আমি অনেক চেষ্টা করে ২০১৭ সালে সাভারে নদীরক্ষা কমিটি নাগরিক কমিটিকে সঙ্গে নিয়ে জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে একটি টাস্কফোর্স গঠন করেছিলাম। কিন্তু পরবর্তী সময়ে এটি আর এগোয়নি। তার পরও আজ যে আলোচনা হয়েছে, এর ওপর ভিত্তি করে আমি নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলাপ করে সাভারের নদীগুলো দখল দূষণমুক্ত করার চেষ্টা করব।

সময় সাভারের বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষের মধ্যে জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক-শিক্ষার্থী, শিল্পপ্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি, সাংবাদিক, স্থানীয় পরিবেশবাদী সংগঠনের নেতারা মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন। গণশুনানিতে স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, তুরাগ, ধলেশ্বরী, বংশী, গাজিখালী নদী দ্বারা সাভার বেষ্টিত। শিল্প কলকারখানার বর্জ্য দ্বারা দূষণ প্রভাবশালীদের দখলে সংকটের মুখে রয়েছে এসব নদী। দূষণযুক্ত পানি পান করে নিম্ন আয়ের পরিবারের মানুষ নানা রোগে ভুগছে। ধলেশ্বরী নদীর পানি দূষিত হয়ে মরে যাচ্ছে নদীর মাছ।

গণশুনানিতে এলাকাবাসীর বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন, বেলার নির্বাহী পরিচালক সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান।

গণশুনানিতে বেলার পক্ষ থেকে নদী রক্ষায় বিভিন্ন সুপারিশ করা হয়।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন