শনিবার | নভেম্বর ২৭, ২০২১ | ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

আন্তর্জাতিক খবর

আফগানিস্তানে তালেবান শাসনের ১০০ দিন

বণিক বার্তা অনলাইন

আফগানিস্তানে দ্বিতীয়বারের মত ক্ষমতা দখলের পর ১০০তম দিন পার করল তালেবান সরকার। এ কয়দিনে অর্থনীতি, নিরাপত্তা, শিক্ষা ও স্বাস্থ্যখাত নিয়ে বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে দেশটি। বিবিসির প্রতিবেদনে এমন চিত্রই উঠে এসেছে।

মঙ্গলবার বিবিসির এক অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দেশটির অর্থনীতি কার্যত ভেঙে পড়েছে। বেকারের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। 

বিবিসিকে দেশটির একজন ইট ভাটার শ্রমিক জানিয়েছেন, তার আয় কমেছে প্রায় ১২ গুণ। আগে তিনি ২৫ হাজার আফগানি মুদ্রা আয় করতেন। বর্তমানে সেটি দুই হাজারে নেমে এসেছে। দরিদ্র পরিবারের কোনো ভবিষ্যৎ নেই বলে জানান তিনি। এ শ্রমিক বলেন, তালেবানরা ক্ষমতায় আসার আগে অবস্থা খুব ভালো ছিল তা নয়। কিন্তু এখন অবস্থা অনেক বেশি খারাপ।

তালেবানরা এমন একটি দেশ দখল করেছে যেটি আন্তর্জাতিক সাহায্যের উপর  অনেক বেশি নির্ভরশীল ছিল। জাতিসংঘ বলছে, প্রায় ২৩ মিলিয়ন আফগান নাগরিক চরম খাদ্য সংকটে ভুগছে। ৯৫ শতাংশ মানুষের পর্যাপ্ত খাবার নেই। 

তবে তালেবান মুখপাত্র সুহেল শাহীনের দাবি, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ও পশ্চিমাদের কর্মকাণ্ডই আফগান জনগণের দুর্ভোগের কারণ ।

এ মুহূর্তে আফগানিস্তানের জন্য সবচেয়ে বড় উদ্বেগের কারণ নিরাপত্তা। প্রায় ছয় মাস আগে মেয়েদের ‘সাইয়েদ আল-শাহাদা স্কুলে’ বড় ধরনের হামলা চালায় ইসলামিক স্টেট খোরাসান (আইএস-কে)। শতাধিক ছাত্রী প্রাণ হারায় সেই হামলায়। তালেবান ক্ষমতায় আসার আগে এ হামলা হলেও বর্তমানে আইএস-কে আফগানিস্তানের শিয়া সম্প্রদায়ের উপর হামলা অব্যাহত রেখেছে।

যদিও তালেবান সব আফগানদের নিরাপত্তা দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। কিন্তু দেশটির এক নাগরিক বিবিসিকে বলেন, তারা এখনও নিরাপদ বোধ করছেন না। বর্তমান অবস্থা চলতে থাকলে সবকিছুতে ভয়াবহ বিপর্যয় নেমে আসবে।

তালেবানরা ক্ষমতা দখল করার পর নারীদের স্কুলে যেতে সাময়িকভাবে নিষিদ্ধ করেছিল। তারা বলেছিল মেয়েদের নিরাপত্তা নিশ্চিত ও পড়াশোনার পরিবেশ তৈরি করার আগ পর্যন্ত ঘরে থাকতে হবে। বিবিসিকে দেশটির এক নাগরিক জানান, তারা খুব আশাবাদী যে তালেবানরা শিগগিরই মেয়েদের শিক্ষা পুরোপুরি চালু করবে।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে. দেশটিতে শিশুরা তীব্র অপুষ্টিতে ভুগছে। ইন্দিরা গান্ধী শিশু হাসপাতালের এক চিকিৎসক জানিয়েছেন, অপুষ্টি গ্রীষ্মকালে একটি সাধারণ সমস্যা। শরৎকালে রোগীর সংখ্যা কম হওয়ার কথা থাকলেও বর্তমানে অপুষ্টির শিকার রোগী বেশি পাচ্ছেন তারা। প্রতিদিন সেবা চালিয়ে গেলেও কয়েক মাস ধরে স্বাস্থ্যকর্মীদের বেতন দেয়া হচ্ছে না বলে জানান এ চিকিৎসক।

বিবিসি জানিয়েছে, হাসপাতালে আসা বেশিরভাগ রোগীরই টিকিট কেনার অর্থ নেই। হাসপাতালে খাবারের অর্থও যোগান দিতে পারছেন না তারা।

চলতি বছরের ১৫ অগাস্ট দীর্ঘ দুই দশক পর পুনরায় কাবুল ও প্রেসিডেন্ট ভবনের নিয়ন্ত্রণ নেয় তালেবান। স্বঘোষিত বিজয়ের ফলে ভবিষ্যতে অভ্যন্তরীণ, আঞ্চলিক এবং আন্তর্জাতিক বিভিন্ন বিষয়ে ভাবনার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে, তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা ও শঙ্কা।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন