বৃহস্পতিবার | ডিসেম্বর ০২, ২০২১ | ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

পণ্যবাজার

রেকর্ড গম রফতানির পথে অস্ট্রেলিয়া

বণিক বার্তা ডেস্ক

টানা দ্বিতীয়বারের মতো অস্ট্রেলিয়ায় গমের ফলন ভালো হয়েছে। দেশীয় চাহিদা মিটিয়ে বড় একটি অংশ উদ্বৃত্ত থাকবে। ফলে বিশ্ববাজারে রেকর্ড পরিমাণ গম রফতানির লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছে ওশেনিয়া মহাদেশের দেশটি। বিশ্বব্যাপী গমের শক্তিশালী চাহিদা থাকায় ২০১১-১২ মৌসুমের রফতানি রেকর্ড ভাঙার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। মার্কিন কৃষি বিভাগের (ইউএসডিএ) ফরেন এগ্রিকালচারাল সার্ভিসের প্রকাশিত প্রতিবেদনে তথ্য উঠে এসেছে।

ইউএসডিএ জানায়, ২০২০-২১ বিপণন মৌসুমের ১১ মাসে অস্ট্রেলিয়া কোটি ২৬ লাখ টন গম রফতানি করে। রফতানিতে প্রবৃদ্ধির ধারা অব্যাহত থাকলে মোট রফতানি দাঁড়াবে কোটি ৪০ হাজার টন। এটি ২০১১-১২ মৌসুমের রেকর্ড রফতানির চেয়ে সাত লাখ টন কম।

প্রতিবেদনের তথ্য বলছে, রফতানি সবচেয়ে বেশি বেড়েছে ইন্দোনেশিয়া ভিয়েতনামে। ইন্দোনেশিয়ায় রফতানি ৫৮৩ এবং ভিয়েতনামে ৩৭৪ শতাংশ বাড়ে। ১০০ শতাংশের বেশি বেড়েছে থাইল্যান্ড, ফিলিপাইন, ইয়েমেন মালয়েশিয়ায়।

লক্ষণীয়, অনেক দেশ রয়েছে যেগুলোতে গত পাঁচ বছরে গম রফতানির হার ছিল অত্যন্ত কম। কিন্তু ২০২০-২১ মৌসুমে এসব দেশই অস্ট্রেলিয়ার শক্তিশালী রফতানি বাজারে পরিণত হয়। এর মধ্যে রয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা, কেনিয়া, সৌদি আরব, শ্রীলংকা ইতালি।

দুই বছরের বিধ্বংসী খরার পর টানা দ্বিতীয়বারের মতো অস্ট্রেলিয়ায় গমের ফলন ভালো হয়েছে। রেকর্ড রফতানিতে প্রধান প্রভাবকের ভূমিকা রাখছে ঊর্ধ্বমুখী উৎপাদন।

এদিকে ইউএসডিএর পূর্বাভাস বলছে, ২০২১-২২ মৌসুমে অস্ট্রেলিয়ার গম উৎপাদন কোটি ১৫ লাখ টনে পৌঁছবে। এটি গত বছরের রেকর্ড উৎপাদনের তুলনায় ১৮ লাখ টন কম, তবে তৃতীয় সর্বোচ্চ উৎপাদন। এছাড়া ১০ বছরের গড় উৎপাদনের তুলনায় ১০ শতাংশ বেশি।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন