রবিবার | ডিসেম্বর ০৫, ২০২১ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

দেশের খবর

ময়মনসিংহে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় গ্রেফতার ৬

বণিক বার্তা প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ

ময়মনসিংহ শহর ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা থেকে দুই দফা পুলিশের অভিযানে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় বৃহস্পতিবার ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে বৃহস্পতিবার রাতে ঈশ্বরগঞ্জ থেকে তিন আসামিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গতকাল সকালে তাদের ময়মনসিংহ আদালতে পাঠানো হয়েছে। আদালত তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। গ্রেফতারকৃতরা হলেন ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার ইটাউলিয়া গ্রামের প্রয়াত ইন্তাজ আলীর ছেলে হাবিবুর রহমান মেনু মিয়া (৭৮), জাটিয়া ইউনিয়নের ফানুর গ্রামের প্রয়াত আবদুল হামিদ ফকির ইমান আলীর ছেলে আবদুল মান্নান ক্বারী (৯২) সোহাগী ইউনিয়নের প্রয়াত আবদুল গফুরের ছেলে আবদুল হান্নান (৬৮) তিনজনকেই নিজ এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঈশ্বরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আবদুল কাদের মিয়া।

এর আগে বৃহস্পতিবার বিকালে ময়মনসিংহ কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশ নগরীর এবি গুহ রোড এলাকা সৈয়দ মোস্তাফিজুর রহমানকে (৭২) গ্রেফতার করে। তিনি ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার সোহাগী বাজারের বাসিন্দা প্রয়াত হোসাইন আহম্মেদের ছেলে।

একই সময় ঈশ্বরগঞ্জ থানা পুলিশ আঠারবাড়ী ইউনিয়নের রায়েরবাজার থেকে তারা মিয়া নামে এক মুক্তিযোদ্ধা ভাতাভোগীকে গ্রেফতার করে। তিনি ইটাউলিয়া গ্রামের মৃত শাহনেওয়াজের ছেলে। এছাড়া আঠারবাড়ি এলাকা থেকে যুদ্ধাপরাধ মামলায় রুস্তম আলীকেও (৮১) গ্রেফতার করা হয়। তিনি উপজেলার কালিয়ান গ্রামের মেফর আলীর ছেলে।

গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে তারা মিয়া জালিয়াতির মাধ্যমে যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে সরকারি সুযোগ-সুবিধা ভোগ করছিলেন। অপরদিকে ২৩ সেপ্টেম্বর শহীদুল্লাহ ফকিরকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠায় পুলিশ।

২০২০ সালের নভেম্বর আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালে  ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার ১২ জনের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধকালে মানবতাবিরোধী অপরাধে জড়িত থাকার অভিযোগ করা হয়। বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল ঈশ্বরগঞ্জের ১২ রাজাকারের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে। এরই মধ্যে সাতজনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন