রবিবার | নভেম্বর ২৮, ২০২১ | ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

পণ্যবাজার

প্রবৃদ্ধির পথে ব্রাজিলের সয়াবিন রফতানি

বণিক বার্তা ডেস্ক

২০২১-২২ মৌসুমে ব্রাজিলের সয়াবিন রফতানি বাড়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। পাশাপাশি রেকর্ড পরিমাণ সয়াবিন উৎপাদনেরও পূর্বাভাস মিলেছে। মার্কিন কৃষি বিভাগের (ইউএসডিএ) ফরেন এগ্রিকালচার সার্ভিস এক প্রতিবেদনে তথ্য জানিয়েছে।

চলতি মৌসুমে সয়াবিন রফতানি বেড়ে কোটি ২০ লাখ টনে পৌঁছানোর পূর্বাভাস দিয়েছে ইউএসডিএ। আগের মৌসুমে রফতানির পরিমাণ ছিল কোটি ৫৩ লাখ টন। মুদ্রার অনুকূল বিনিময়মূল্য এবং পর্যাপ্ত সরবরাহ থাকায় রফতানিতে সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।

ইউএসডিএ জানায়, আগামী বছর মহামারী পরিস্থিতি আরো স্বাভাবিক হতে পারে। বিশেষ করে টিকাদান কর্মসূচির দ্রুত প্রসার ঘটায় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের নেতিবাচক প্রভাব কমছে। ফলে বিশ্বজুড়ে সয়াবিনের চাহিদায় ঊর্ধ্বমুখিতা অব্যাহত থাকবে। কারণেই রফতানি পূর্বাভাস বাড়িয়েছে ইউএসডিএ। মৌসুমে ব্রাজিলিয়ান সয়াবিনের সবচেয়ে বড় ক্রেতা হিসেবে নিজেদের অবস্থান ধরে রাখতে সক্ষম হবে চীন।

প্রতিষ্ঠানটির পূর্বাভাস অনুযায়ী, মৌসুমে ১৪ কোটি ৫০ লাখ টন সয়াবিন উৎপাদন হতে পারে। ২০২০-২১ মৌসুমে দেশটিতে ১৩ কোটি ৭০ লাখ টন সয়াবিন উৎপাদন হয়। প্রতি হেক্টর জমি থেকে ৩৫ লাখ ৮০ হাজার টন সয়াবিন উৎপাদন হবে বলে মনে করছে ইউএসডিএ।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ব্রাজিলে কৃষি প্রযুক্তিতে বিনিয়োগ বাড়ছে। পাশাপাশি রাসায়নিক সার ব্যবহারের মাত্রা কমছে। কারণেই উৎপাদন বাড়ছে। বিশ্ববাজারে ঊর্ধ্বমুখী চাহিদা এবং স্থানীয় বাজারে উচ্চমূল্য দেশটির কৃষকদের সয়াবিন উৎপাদনে উৎসাহিত করছে। ২০২১-২২ মৌসুমে কোটি লাখ হেক্টর জমিতে সয়াবিন আবাদ করেছেন কৃষকরা। আগের মৌসুমে আবাদের পরিমাণ ছিল কোটি ৯০ লাখ হেক্টর।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন

×