বৃহস্পতিবার | ডিসেম্বর ০২, ২০২১ | ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

পণ্যবাজার

হিলিতে দুদিনের ব্যবধানে বেড়েছে পেঁয়াজের দাম

বণিক বার্তা প্রতিনিধি, হিলি

দিনাজপুরের স্থিলি স্থলবন্দরে দুদিনের ব্যবধানে আবারো বেড়েছে পেঁয়াজের দাম। কয়েক দফা দাম কমায় পেঁয়াজ আমদানি করে লোকসান হচ্ছিল। কারণে আমদানি কমিয়ে দিয়েছেন ক্রেতারা। ফলে আবারো ভোগ্যপণ্যটির দাম বাড়তে শুরু করেছে।

বন্দরসংশ্লিষ্টরা বলছেন, বর্তমানে দেশীয় পেঁয়াজের দাম কম। তার ওপর বাজারে আমদানীকৃত পেঁয়াজের চাহিদা নেই বললেই চলে। এছাড়া অতিরিক্ত গরমের কারণে পেঁয়াজ নষ্ট হয়ে যাচ্ছিল। এসব কারণে কম দামে পেঁয়াজ বেচে দিতে বাধ্য হচ্ছিলেন আমদানিকারকরা। লোকসান হওয়ায় তারা বর্তমানে আমদানি কমিয়ে দিয়েছেন। এদিকে দাম বাড়ায় বিপাকে পড়েছেন পাইকাররা।

জানা গেছে, মাত্র দুদিনের ব্যবধানে পেঁয়াজের দাম কেজিতে - টাকা করে বেড়েছে। দুদিন আগে বন্দরে প্রতি কেজি পেঁয়াজ পাইকারিতে (ট্রাকসেল) ৩৪-৩৬ টাকা দরে বিক্রি হলেও বর্তমানে তা বেড়ে ৩৮ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

হিলি স্থলবন্দরে পেঁয়াজ কিনতে আসা ইয়াসিন আলী বলেন, পূজার পর পেঁয়াজের দাম কমতির দিকে ছিল। যদিও মোকামগুলোতে চাহিদা কম ছিল। তবে আবারো দাম বাড়তে শুরু করেছে।

হিলি স্থলবন্দরের পেঁয়াজ ব্যবসায়ী সবুজ হোসেন শরিফুল ইসলাম বলেন, পূজার ছুটি শেষে ১৭ অক্টোবর বন্দর দিয়ে পুনরায় পেঁয়াজ আমদানি শুরু করেন আমদানিকারকরা। কিন্তু দেশের বাজারে আমদানীকৃত পেঁয়াজের চাহিদা না থাকায় দেশীয় পেঁয়াজের দাম কিছুটা কম থাকায় লোকসান হচ্ছিল। এছাড়া অতিরিক্ত গরমের কারণে পেঁয়াজ নষ্ট হয়ে যাওয়ায় কম দামে বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছিলেন আমদানিকারকরা। অব্যাহত লোকসানের কারণে আমদানি কমিয়ে দিয়েছেন তারা। এছাড়া বর্তমানে ভারতে পেঁয়াজের যে দাম রয়েছে, তাতে দেশের বাজারে আমদানি করে ৪০-৪২ টাকায় বিক্রি করলে লাভ হয়। কিন্তু দেশে পেঁয়াজের দাম ৩৪-৩৬ টাকায় নেমে এসেছে। ফলে ভারতে পেঁয়াজ লোডিং বন্ধ হয়ে গেছে। কমেছে বন্দর দিয়ে পেঁয়াজের আমদানি। চাহিদার তুলনায় সরবরাহ কম থাকায় দাম বাড়ছে।

হিলি স্থলবন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন বলেন, পূজার ছয়দিন বন্ধ শেষে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পুনরায় আমদানি-রফতানি বাণিজ্য শুরু হয়েছে। বন্দর দিয়ে পেঁয়াজসহ অন্যান্য পণ্য আমদানি অব্যাহত আছে। তবে পেঁয়াজ আমদানি আগের তুলনায় কমছে। গত সোমবার বন্দর দিয়ে ১৭টি ট্রাকে ৪৭৪ টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছিল। মঙ্গলবার ১৩টি ট্রাকে ৩৫৫ টন পেঁয়াজ আমদানি হয়। বুধবার আমদানি করা হয় ১০টি ট্রাকে ২৬৫ টন। বৃহস্পতিবার ৯টি ট্রাকে ২৬৪ টন পেঁয়াজ দেশে প্রবেশ করেছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন