রবিবার | ডিসেম্বর ০৫, ২০২১ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

খবর

ওয়েবিনারে বক্তারা

বর্তমানে গ্র্যাজুয়েটদের কর্মক্ষেত্র বিশ্বময় ছড়িয়ে পড়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক

পছন্দের পেশায় যাওয়া কোনো কালেই সহজ ব্যাপার ছিল না। আগে প্রতিযোগীর সংখ্যা যেমন কম ছিল, কাজের সুযোগও সীমিত ছিল। কিন্তু বর্তমানে গ্র্যাজুয়েটদের কর্মক্ষেত্র বিশ্বময় ছড়িয়ে পড়েছে। তাই তাদের প্রধান দায়িত্ব হলো নিজেকে যথেষ্ট যোগ্য দক্ষরূপে গড়ে তোলা। শুধু নির্ধারিত পাঠ্যবই আর পরীক্ষার সিলেবাস কাভার করে পড়ালেখা করলেই তীব্র প্রতিযোগিতায় উত্তীর্ণ হওয়া যাবে না; বরং সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলোয় কোর্স করতে হবে, সহপাঠীদের সঙ্গে আলোচনা করতে হবে, স্বেচ্ছাসেবামূলক নানা কাজে অংশ নিতে হবে। ছাত্রজীবনেই বাস্তবসম্মত বিভিন্ন কাজের অংশ হয়ে টিমওয়ার্ক শিখতে হবে। সেগুলো করতে পারলে শুধু দেশের অভ্যন্তরে নয়, বরং আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলেও কাজের ব্যাপক সুযোগ রয়েছে।

সম্প্রতি শাহজালাল বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন আয়োজিত এক অনলাইন সেমিনারে একথা বলেন আলোচকরা। ক্যারিয়ার প্ল্যানিং ফর বিজনেস গ্র্যাজুয়েটস শীর্ষক সেমিনারে প্রায় তিন শতাধিক শিক্ষক, গবেষক শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন।

ওই সেমিনারে শিক্ষার্থীদের ক্যারিয়ার পছন্দ উন্নয়নসংক্রান্ত নানা চ্যালেঞ্জ এবং সেগুলো থেকে উত্তরণের ব্যাপারে বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক . মীজানুর রহমান, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যারিয়ার অ্যান্ড প্লেসমেন্ট সেন্টারের পরিচালক প্রফেসর মোহাম্মদ খসরু মিয়া এবং বেঙ্গল এয়ার লিফট কোম্পানির নির্বাহী পরিচালক বাহা উদ্দিন মিয়া।

স্কুল অব ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের ডিন প্রফেসর . খায়রুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য রাখেন শাবি ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের প্রধান প্রফেসর . মাজহারুল হাসান মজুমদার।

আলোচকরা বলেন, আজকের শিক্ষার্থীদের প্রতিযোগিতা শুধু দেশের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সঙ্গেই নয়। তার প্রমাণ হলো, দেশের বেসরকারি বড় খাতগুলোয় বিপুল পরিমাণ বিদেশী কর্মী কাজ করছেন। তারা টেকনিক্যাল বিষয়ে জ্ঞান অর্জন করায় আমাদের গ্র্যাজুয়েটদের পেছনে ফেলে কর্মক্ষেত্রে সফল হতে পারছেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন